কলকাতার রানাঘাটের স্টেশনের ভিক্ষুক থেকে মুম্বাইয়ের রেকর্ডিং স্টুডিওতে জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ার বদৌলতে রাতারাতি সেলিব্রেটিও হয়েছিলেন। বলিউডের বেশ কিছু স্বনামধন্য সুরকার সুযোগ দিয়েছিলেন তাকে। তবে, এখন আর সেসবকিছুর কোনকিছুই নেই তার। আবারও সেই কলকাতার রানাঘাটের স্টেশনে ফিরে আসতে হলো তাকে। শুরু করতে হয়েছে তার আগের পেশা “ভিক্ষে করা”।
রানু মন্ডলের এমন অবস্থার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম ‘এই সময়’।
গণমাধ্যমটির একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়,  দাম্ভিকতা ও দুর্ব্যবহারের জন্য ভাগ্য তাকে সুযোগ দিলেও সেটি কাজে লাগাতে পারলেন না রানু। সামান্য বিখ্যাত হয়ে উঠতেই নিজেকে তিনি অনেক বড় তারকা মনে করতে শুরু করেন। সবার সঙ্গেই বাজে আচরণ করেছেন। কেউ ছবি তুলতে এলে ভুল ইংরেজিতে তাদের সঙ্গে দুর্ব্যহার করেছেন। ভিখারিদের নিয়েও নোংরা মন্তব্য করাসহ নানা কর্মকান্ডে সমালোচিত হয়েছেন তিনি।
তার এসব অপ্রত্যাশিত কর্মকান্ডের ছবি-ভিডিও সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়েছে বারবার। যা ক্ষেপিয়ে তুলেছে তার প্রতি সদয় হওয়া সবাইকে।
এরপর,সবাই তাকে কাজে নেওয়া বন্ধ করে দেয়। ফলে, বেঁচে থাকার তাগিদে আবার সেই স্টেশন চত্বরেই ফিরে আসতে হলো তাকে।