কক্সবাজারের রামুর ঈদগড়ে সকাল সন্ধ্যা হরতাল চলছে। শিশু শিল্পী জনি দে রাজ ও মোহাম্মদ কালু হত্যার প্রতিবাদে বন্ধ রাখা হয়েছে সব ধরক্ষেত্র দোকান পাট। শুধু  মাত্র জরুরী সেবা বিশেষ করে ওষুধের দোকান খোলা রাখা হয়েছে। কক্সবাজার ঈদগাঁও থেকে রামুর ঈদগড বাইশারি পর্যন্ত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে যান চলাচল।

বেলা ১১ টায় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, দোকান মালিক সমিতি ও সাধারণ মানুষের অংশ গ্রহনে মানববন্ধন হয়েছে।
জনি ও কালো হত্যাকারীদের আটক এবং দীর্ঘদিন ধরে ঈদগড সড়কে খুন অপহরণ ও ডাকাতি বন্ধের প্রতিবাদে এই হরতাল পালিত হচ্ছে।
আন্দোলনকারীরা বলছেন, যতদিন পর্যন্ত অত্র এলাকার অপরাধ বন্ধ ও অপরাধীদের আইনের আনা হবেনা ততদিন নানা কর্মসুচী পালিত হবে।
স্থানীয়রা বিজিবির টহল ও সেনা ক্যাম্প প্রতিষ্ঠার দাবী জানিয়েছেন এই আন্দোলন থেকে।