ঈদের বন্ধের মধ্যেও বেনাপোল-পেট্রোপোল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে এলো ১১ গাড়ি অক্সিজেন। জরুরি সেবার অংশ হিসেবে এ অক্সিজেন আমদানি করা হয়েছে। দেশে চিকিৎসা খাতে অক্সিজেন চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় বিশেষ ব্যবস্থায় এ অক্সিজেন আমদানি করা হলো।

বুধবার (২১ জুলাই) দুপুর ৩টার সময় ভারত থেকে বেনাপোল স্থল বন্দরে আমদানি করা অক্সিজেনের ১১টি গাড়ি প্রবেশ করে।

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- বাংলাদেশের এক্সপেট্রা অক্সিজেন, লিন্ডে বাংলাদেশ ও পিউর অক্সিজেন।

আমদানিকারকের পক্ষে বন্দর থেকে অক্সিজেন ছাড় করান সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট রয়েল লিমিটেড। এর আগে সরকারি এক নির্দেশনায় ঈদের ছুটির মধ্যে প্রয়োজন হলে অক্সিজেন আমদানির ব্যবস্থা সচল রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল বন্দরে।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কমিশনার আজিজুর রহমান বলেন, ঈদুল আজহা উপলক্ষে বেনাপোল-পেট্রোপোল বন্দর চার দিন বন্ধ থাকবে। তবে দেশে মহামারি করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় অক্সিজেনের চাহিদাও বেড়েছে। এজন্য দেশে অক্সিজেনের চাহিদা মেটাতে বন্ধের মধ্যেও অক্সিজেন আমদানি সচল রাখা হয়েছে। আমদানিকারকরা যাতে অক্সিজেন দ্রুত খালাস নিতে পারেন সেজন্য কাস্টমস কর্মকর্তাদের দুটি টিম কাজ করছে।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান জানান, বাংলাদেশ এবং ভারত অংশে বন্দর ও কাস্টমসের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং ব্যবসায়ীদের আন্তরিক সহযোগিতায় ঈদের দিন অক্সিজেন আমদানি সম্ভব হয়েছে।