জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকা জনগনকে হতাশ করেনা। মাটি ও মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে এ নৌকার ভূমিকা অপরিসীম। নৌকা নিয়ে নির্বাচিতরা এলাকাকে আলোকিত করেছে।

রাশেদ মাহমুদ আলী তাদেরই একজন যিনি গত দুই বছরে হ্নীলা ইউনিয়নকে বদলে দিয়েছে।

মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় হ্নীলা বাস স্টেশনের ছৈয়দুল্লাহ মার্কেট চত্বরে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে হ্নীলা ইউনিয়নে আ’লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী রাশেদ মাহমুদ আলীর সমর্থনে আয়োজিত বিশাল নির্বাচনী জনসভায় কক্সবাজার জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

হ্নীলা ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি, হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও আ’লীগ থেকে মনোনীত প্রার্থী রাশেদ মাহমুদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জনসভায় মেয়র মুজিব আরো বলেন, দলীয় লোক হয়ে যারা নৌকার বিরোধিতা করবেন তাদেরকে খুব শীঘ্রই রেড নোটিশ দেয়া হবে।

টেকনাফ উপজেলা আ’লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সেলিম শিকদার ও প্রচার সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকনের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত জনসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক সংসদ সদস্য ও কক্সবাজার জেলা আ’লীগের সদস্য আলহাজ্ব আবদুর রহমান বদি, জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি ও চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম, সহ-সভাপতি ও জেলা আ’লীগ সাংগঠনিক টিমের প্রধান রাজা শাহ আলম, টেকনাফ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি শফিক মিয়া, জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনিন সরওয়ার কাবেরি, জেলা আ’লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ও টেকনাফ উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এইচ এম ইউনুস বাঙ্গালি।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা যুবলীগ সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, টেকনাফ উপজেলা ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাস্টার জাহেদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নুরুল বশর, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সেলিম সিকদার, মাহবুব মোর্শেদ, টেকনাফ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও টেকনাফ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আলম, টেকনাফ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সরওয়ার আলম, টেকনাফ উপজেলার আ’লীগের প্রচার সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকন, টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম মুন্না, সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান মুজিব, বাহারছড়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সাইফুল্লাহ কোং ও অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর ছোট ছেলে সাবেক ছাত্রনেতা তারেক মাহমুদ রনি প্রমুখ।