চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতলের আইসোলেশন ইউনিটে স্বামীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ছুরি নিয়ে ডাক্তারকে তাড়া করেন এক নারী।

শুক্রবার (৬ আগস্ট) দুপুর ১২টায় হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত ব্যক্তি ফরিদগঞ্জ উপজেলার রূপসা গ্রামের দেলোয়ার হোসেন (৫২)। তার স্ত্রী কুলসুমা বেগম। ছুরি নিয়ে ডাক্তারকে তাড়া করার কারণে হাসপাতালে রোগীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

জানা যায়, গত বুধবার করোনা উপসর্গ নিয়ে কুলসুমা তার স্বামীকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। পরে শুক্রবার দুপুর ১২টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

কিন্তু স্বামীর মৃত্যুর বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি স্ত্রী কুলসুমা। আর এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও স্টাফদের মারতে উদ্ধত হন ওই নারী। একপর্যায়ে ওই নারী জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন এবং মাটিতে পড়ে যান।

জানা যায়, এসময় হাসপাতালে এই দম্পতির সাথে আর কেউ ছিল না। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কুলসুমার এখনো জ্ঞান ফেরেনি।

প্রত্যক্ষদর্শী অন্য এক রোগীর স্বজন আবদুল্লাল আল মামুন শুভ বলেন, মহিলার স্বামী মারা যাওয়ার পরেই মহিলা উগ্র হয়ে উঠেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. এ এইচ এম সুজাউদ্দৌলা রুবেল বলেন, স্বামী মারা যাওয়ায় ওই নারী মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। তাই সে ছুরি নিয়ে এমন কাণ্ড ঘটান।