২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে প্রস্তুত করা হয়েছে। আজ বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এ সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের প্রস্তাব পাঠানো হবে বলে জানা গেছে। মন্ত্রণালয় সেটি যাচাই-বাছাই করে অনুমোদন দিলেই শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হবে।

এনসিটিবি সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ জানুয়ারি এনসিটিবিতে কারিকুলাম বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সেখানে কর্মকর্তাদের ৬০দিন এসএসসির এবং এইচএসসির ৮৪ দিনের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস করার নির্দেশ দেন।

ওই বৈঠক শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, ৯ মে এসএসসির এবং ১৫ জুন এইচএসসির সব ক্লাস শেষ করতে হবে এবং জুনে এসএসসি ও জুলাই বা আগস্টে এইচএসসি পরীক্ষা নেয়া হবে। এ সময়ের মধ্যে যতটুকু পড়ানো যাবে ততটুকু সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করা হবে। এ সংক্ষিপ্ত সিলেবাস থেকে পরীক্ষা প্রশ্ন ও উত্তরপত্র মূল্যায়ন করা হবে।

শিক্ষামন্ত্রীর এমন নির্দেশনার পর এসএসসি-এইচএসসির প্রত্যেকটি শ্রেণিতে দুদিন করে ওয়ার্কশপ করে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের কাজ মঙ্গলবার শেষ করেছেন এনসিটিবির বিশেষজ্ঞরা। এর আগে গড়ে ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ সিলেবাস কমানো হলেও এবার প্রায় ৫০ শতাংশ কমানো হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

তবে সিলেবাস কত শতাংশ কমানো হয়েছে তা জানা যায়নি।

এর আগে ২৫ জানুয়ারি এসএসসির পরীক্ষার্থীদের জন্য গড়ে ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ সিলেবাস কমিয়ে শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। এ সিলেবাস তিন মাসে শেষ করা সম্ভব নয় দাবি করেন শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। এরপর শিক্ষামন্ত্রী সেই সিলেবাস আরও সংক্ষিপ্ত করে নির্দিষ্ট ক্লাস ও দিন উল্লেখ করে দেন।