কক্সবাজারে ভ্রমণে আসা এক নারী পর্যটক (১৯) ৪ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মারা গেছেন। পুলিশ বলছে, অতিরিক্ত মদ্যপানে অসুস্থ হওয়ায় তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। বুধবার (১৮ মে) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় সঙ্গে আসা ৪ বন্ধুর মধ্যে ২ জনকে আটক করা হলেও ২ জন পালিয়েছে।

আটক ২ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. সেলিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মারা যাওয়া ওই নারী পর্যটকের বাড়ি বরগুনায় হলেও তিনি বাবা-মায়ের সাথে ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকায় থাকতেন। আটককৃতরা হলেন- যাত্রাবাড়ী এলাকার মো. জাহাঙ্গীরের ছেলে কামরুল আলম (২০) ও আবদুর রহমানের ছেলে আরিফ রহমান নিলু (২১)।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. সেলিম উদ্দিন জানান, গত ১১ মে ওই নারী পর্যটক তার চার বন্ধুর সঙ্গে কক্সবাজারে বেড়াতে আসেন। তারা কলাতলীর বিচ হলি ডে নামের একটি আবাসিক হোটেল ওঠেন। হোটেলে থাকা অবস্থায় ১৪ মে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে ১৬ মে তরুণীকে আইসিইউতে হস্তান্তর করা হয়।

বুধবার (১৮ মে) দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

ওসি তদন্ত জানান, ওই তরুণীর সঙ্গে আসা চারজনের মধ্যে আটক ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৫ মে পুলিশ হেফাজতে আনা হয়। তারা স্বীকার করেছে ওই তরুণীসহ তারা অতিরিক্ত মদ পান করেছিলেন। পরে একই দিন ৫৪ ধারায় আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মেয়েটির অভিভাবকরা কক্সবাজারে এসেছেন।

তারা এখনো কোনো অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।