কক্সবাজার জেলায় কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে৷

শনিবার (৩ অক্টোবর) জেলা প্রশাসক কার্যালয় সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব ও
কক্সবাজার জেলা কোভিড-১৯ প্রতিরোধ কার্যক্রম প্রতিরোধ কমিটির সমন্বয়ক হেলালুদ্দীন আহমদ।

এসময় সিনিয়র সচিব বলেন, কোভিড-১৯ এর সেকেন্ড ওয়েভ প্রতিরোধে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ, যতদিন পর্যন্ত টিকা না আসছে আবশ্যিকভাবে সকলের মাস্ক পরিধান নিশ্চিতকরণ, যারা মাস্ক পরিধান করবে না তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা, সর্বদা হাত পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করণে জনসচেতনতা সৃষ্টি, জনসমাগম করে অনুষ্ঠান আয়োজন নিষিদ্ধ করা, ধনাঢ্য ব্যক্তিদের বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করতে উৎসাহ প্রদান করা, বৃদ্ধ ও অসুস্থ ব্যক্তির ঘরে থাকা নিশ্চিত করা, জেলায় তরুণ-তরুণীদের নার্সিং পেশায় আসতে উদ্বুদ্ধকরণ, কক্সবাজারের হাসপাতাল সমূহে জনবল সংকট নিরসনে উদ্যোগ গ্রহণ, মেডিকেল বর্জ্য অপসারণের লক্ষ্যে ইনসিনারেটর স্থাপন, নো মাস্ক নো সার্ভিস-সামাজিক আন্দোলন জোরদার করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভা শেষে উপজেলা পর্যায়ে উন্নত স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে প্রয়োজন অনুযায়ী মহেশখালী ও রামু উপজেলায় হাই ফ্লো নজল ক্যানুলা এবং পেকুয়া, কুতুবদিয়া, মহেশখালী উপজেলায় অক্সিজেন কন্সেন্ট্রেটর প্রদান করা হয়।

এসময় কক্সবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শ্রাবস্তী রায়, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আশরাফুল আফসার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাসুদুর রহমান মোল্লা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, এড. সিরাজুল মোস্তফা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) আমিন আল পারভেজ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শাহজাহান আলি, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান, কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল ইসলাম, উপজলা নির্বাহী অফিসারগণ, সেনাবাহিনীর প্রতিনিধি, নৌবাহিনীর প্রতিনিধি, অধ্যক্ষ কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সিভিল সার্জন এর প্রতিনিধি, দায়িত্বপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক সদর হাসপাতাল, তিন পৌরসভার মেয়রবৃন্ধ, নির্বাহী প্রকৌশলী, পৌর আয়ামী লীগের সভাপতি, ডিপিএইচই ও এলজিইডি, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।