কক্সবাজারের চকরিয়ায় ফসলি জমির খেতের বিরোধ নিয়ে আয়ুব নবী (২৬) নামে এক যুবককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গলাকাটা অবস্থায় খেতের পার্শ্ববর্তী ড্রেনে লাশ পড়ে থাকতে দেখলে ঘটনাটি জানজানি হয়। নিহত আয়ুব নবী উপজেলার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের পূর্ব ভিলেজার পাড়া ৬ নম্বর ওয়ার্ডের শাহ আলমের ছেলে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সকাল ৬টার দিকে আয়ুব বাড়ির এক কিলোমিটার দূরে সবজি ক্ষেতে সার দিতে যায়।

দুপুরে বাড়িতে ভাত খাওয়ার জন্য না ফেরায় তার বাবা শাহ আলম খোঁজ নিয়ে খেতে পৌঁছার পর আয়ুবকে দেখতে না পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেন। পরে পার্শ্ববর্তী একটি ড্রেনে গলাকাটা লাশ দেখতে পান। লাশের উপর  লতাপাতা মুড়িয়ে দেয়া হয়।

তিনি আরো বলেন, একই এলাকার নেজাম উদ্দিনের সাথে আয়ুব আলীর পরিবারের এক সপ্তাহ আগে বাকবিতন্ডা হয়।

এর জের ধরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে।

সুরাজপুর মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম বলেন, ঘটনাটি জানার পর থানা পুলিশকে খবর দেয়া হয়।  চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। লাশের প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।