করোনাভাইরাসের মধ্যে পাকিস্তানে দশমের ফাইনাল ও দ্বাদশ ফাইনাল পরীক্ষা হবে। ২৩ জুন থেকে ২৯ জুলাই পর্যন্ত এ পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির ন্যাশনাল কমান্ড অ্যান্ড অপারেশন সেন্টার (এনসিওসি)।

এ সময়ে বিভিন্ন প্রদেশ চাইলে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও কঠোরভাবে বিধিনিষেধ মেনে এই দুটি ক্লাসে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

দেশটির গণমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের খবরে বলা হয়েছে, কেন্দ্রীয় পরিকল্পনামন্ত্রী আসাদ উমরের সভাপতিত্বে এনসিওসির বৈঠকে সম্প্রতি এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সমন্বয়কারী লেফটেন্যান্ট জেনারেল হামদুজ্জামান।বৈঠকে করোনা মহামারি রোধে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা করা হয়। এতে দেশে করোনা পরিস্থিতিতে সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। তবে সিন্ধু প্রদেশে সংক্রমণ বৃদ্ধিতে সতর্কতা ঘোষণা করা হয়।

ন্যাশনাল কমান্ড অ্যান্ড অপারেশন সেন্টার (এনসিওসি) বলেছে, এর আগে শিক্ষক ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। পরীক্ষার সময় যেন রোগ ছড়িয়ে না পড়ে, সে জন্য এ ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। ১৮ বছরের ওপরের শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা টিকা নেবেন এই সময়ের মধ্যে।