বগুড়ার শেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে জাল ভোট দিতে গিয়ে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। আটককৃত যুবকের নাম আবু সাঈদ সরকার (৪০)। শহরের ডিজে হাইস্কুল ভোটকেন্দ্র থেকে শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল সোয়া ১০টায় তাকে আটক করা হয়।

পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নন্দীগ্রাম ইউএনও শারমিন আক্তারের ভ্রাম্যমাণ আদালত জাল ভোট দেয়ার চেষ্টার অভিযোগে আবু সাঈদকে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়। দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত ওই যুব্ক উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের বাংড়া গ্রামের মোকছেদ আলীর ছেলে।

বগুড়ার শেরপুর ইউএনও লিয়াকত আলী সেখ জানান, আটককৃত আবু সাঈদের বাড়ি গ্রামে, পৌর শহরের এলাকায় নয়। তিনি গাড়ীদহ ইউনিয়নের ভোটার। অথচ পৌরসভার ভুয়া ভোটার দাবি করে তিনি ভোটকক্ষে ঢুকে পড়েন। এমনকি তিনি মুসলিম হলেও নিজেকে হিন্দু ভোটার পরিচয়ে জাল ভোট দেয়ার জন্য নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিকট থেকে ব্যালট পেপারও নেন। কিন্তু প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর এজেন্টদের সন্দেহ হলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। একপর্যায়ে ভুয়া ভোটার প্রমাণিত হলে আবু সাঈদকে আটক করা হয়। একইসাথে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।