চট্টগ্রাম নগরের ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদ এলাকার মৌলভীপাড়ার বাসিন্দা আসমা আক্তার (৩৮) করোনা আক্রান্ত হলে তাকে ভর্তি করা হয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে। কিন্তু ভর্তি করার পর স্বামী মোজাম্মেল স্ত্রীকে হাসপাতালে রেখে চলে যান। গত ২৪ ঘণ্টা পরও মিলেনি খোঁজ। পরে গতকাল বুধবার দিবাগত রাত একটার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আসমা আক্তারের মৃত্যু হয়।

জানা যায়, করোনা পজিটিভ হয়ে গত মঙ্গলবার সকালে চমেক হাসপাতালে আসমা আক্তারকে ভর্তি করান স্বামী মোজাম্মেল। স্ত্রীকে ভর্তি করানোর পর থেকে উধাও হয়ে যায় স্বামী। রাতে রোগীর অবস্থার অবনতি হলে হাসপাতালের রেজিস্ট্রারে থাকা স্বামীর নম্বরে যোগাযোগ করেন ওয়ার্ডের দায়িত্বরত চিকিৎসকরা। কিন্তু ফোন বন্ধ থাকায় পাওয়া যায়নি তাকে। পরে বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে স্ত্রীর মৃত্যু হয়। কোনো স্বজনকে পাওয়া না যাওয়ায় চমেক মর্গে রাখা হয়েছে আসমার মরদেহ।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শীলব্রত বলেন, মহিলাটি মারা যাওয়ার পর থেকে বেশ কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেছি রেজিস্ট্রার বইয়ে থাকা ফোন নাম্বারে। কিন্তু ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। বর্তমানে মরদেহ রাখা হয়েছে মর্গে।