চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ফের পানির নিচে তলিয়ে গেছে। গত কয়েকদিনের বর্ষণের কারণে হাসপাতালের নিচে পানি জমে যায়। তবে সোমবার সকাল থেকেই পানির নিচে পড়ে যায়। এ কারণে হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগী ও স্বজনদের ভোগান্তির অন্ত নেই।

তবে কর্তৃপক্ষ বলছে, নিচতলার রোগীদের হাসপাতালের নতুন ভবনে স্থানান্তর করায় সেবা কার্যক্রমে কোনো ধরনের বেগ পোহাতে হচ্ছে না।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে নিচতলায় শিশু ওয়ার্ড, অভ্যর্থনা কক্ষ, বহির্বিভাগ, প্রশাসনিক বিভাগ ও ক্যান্সার ইউনিট রয়েছে। জলাবদ্ধতার পর এসব সেবা অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হলেও রোগী, স্বজন ও চিকিৎসকদের চলাচলের সমস্যা হচ্ছে।

এখানকার রোগী মো. ইদ্রিস বলেন, রবিবার রাত থেকে মেয়েটা অসুস্থ।

রাস্তায় পানি জমে যাওয়ায় সিএনজি থেকে নেমে যেতে হয়েছে। অনেক কষ্টে হাসপাতালে আসার পর দেখি নিচতলায় পানি জমে আসে। মেয়ে নিয়ে চলাফেরা করতে কষ্ট হচ্ছে।

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের পরিচালক ড. নুরুল হক বলেন, জলাবদ্ধতার বিষয়টি মাথায় রেখে গত বছরে হাসপাতালের নতুন ভবনে বহির্বিভাগ স্থানান্তর করা হয়েছে।

এছাড়া হাসপাতালে দ্বিতীয় তলায় রোগীরা সব ধরনের সেবা পাচ্ছেন। জলাবদ্ধতার কারণে কিছুটা সমস্যা হলেও কোনো রোগীর সেবা বন্ধ নেই।