স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‌‘আগামী জুনের মধ্যে ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের করোনা টিকা দেওয়া হবে। প্রায় দুই কোটি শিশুকে টিকার আওতায় আনা হবে। তাদের ফাইজারের বিশেষ টিকা দেওয়া হবে। ’

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার গড়পাড়া শুভ্রসেন্টারে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় জেলা প্রশাসক আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার গোলাম আজাদ খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মহীউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেয়েছি। ৩০ লাখ টিকা এরই মধ্যে এসেছে। মা-বাবাদের বলবো, ৫ থেকে ১২ বছরের শিশুদের জন্ম নিবন্ধন করে নেবেন।

জন্ম নিবন্ধন দিয়ে টিকার রেজিস্ট্রেশন করে ফেলবেন। যাতে টিকা নিতে কোনো সমস্যা না হয়।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ বিশ্বের এমন একটি দেশে যেখানে প্রায় ৭৫ ভাগ জনগণকে টিকা দেওয়া হয়েছে। টার্গেটের নির্দিষ্ট জনগণের ৯৫ ভাগ লোককে টিকা দেওয়া হয়েছে।

আমরা এরই মধ্যে প্রায় ২৫ কোটি ডোজ টিকা দিয়ে ফেলেছি। আমরা এখন বুস্টার ডোজ দিচ্ছি। যারা বুস্টার ডোজ নেননি তারা দ্রুত বুস্টার ডোজ নেবেন।

করোনার চতুর্থ ঢেউ প্রসঙ্গে জাহিদ মালেক বলেন, ‘আমাদের দেশের বেশিরভাগ মানুষ টিকা নিয়েছেন। তাই চতুর্থ ওয়েব আমাদের দেশে সেভাবে আসবে না।