জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে দোকান থেকে টাকা চুরির অভিযোগে তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে (৯) গাছে বেঁধে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলের এই ঘটনায় রাতে থানায় একটি মামলা হয়েছে। ওই মামলায় অভিযুক্ত চা–দোকানি বেলি বেগমকে (৪০) গতকাল রাতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার মেয়েটি স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদালয়ের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বেলি বেগমের চায়ের দোকানের ক্যাশ থেকে ২০০ টাকা চুরি হয়। এ ঘটনায় বেলি বেগম ৯ বছরের মেয়েটিকে সন্দেহ করেন। মেয়েটিকে ধরে এনে রশি দিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করেন। মেয়েটি টাকা চুরি করেনি বলে জানালেও তিনি তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখেন। ঘটনাটি কেউ একজন মুঠোফোনে ধারণ করেন। পরে রাতে এটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নীরেন্দ্রনাথ মণ্ডল আজ সকালে প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল রাতে শিশুটির দাদা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। পুলিশ রাতেই অভিযুক্ত বেলি বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে।

প্রবাল/শা/এ