টান দিলেই মাস্ক, চাপ দিলেই সেনিটাইজার” সেই সাথে ব্যবহৃত মাস্ক ফেলার ডাস্টবিনতো আছেই”। পৌরবাসীর জন্য এমন ব্যতিক্রমী ‘করোনা প্রতিরোধক বুথ’ নিয়ে এসেছেন কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান। সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ জনগুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন স্থানে বুথগুলো বসানো হবে।

সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রথমবারেরমতো এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন নগর পিতা।

শুক্রবার (৬ আগষ্ট) সকালে কক্সবাজার পৌরসভা প্রাঙ্গণে ‘করোনা প্রতিরোধক বুথ’র’ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো.মামুনুর রশীদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘গত এক বছর ধরে আমরা অদৃশ্য শক্তি করোনা বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছি। এই লড়াইয়ে আমরা জয়ী হবো ইনশাআল্লাহ। তাই করোনা থেকে বাঁচতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। ঘরেই থাকুন, বিশেষ প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হলে মাস্ক ব্যবহার করুন। সাবান—পানি দিয়ে হাত পরিষ্কার করুন। সেই সাথে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখারও আহবান জানান জেলা প্রশাসক।

উদ্বোধনকালে মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, ‘কক্সবাজারে প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঝরে পড়ছে অনেক তাজা প্রাণ। এমন কঠিন পরিস্থিতিতেও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে পরিকল্পিতভাবে নানা সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে কক্সবাজার পৌরসভা।

পাশাপাশি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ও করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় পৌরবাসীর মাঝে প্রতিদিন বিতরণ করা হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার খাদ্য সামগ্রী। সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতন করতে এবার পৌরবাসীর জন্য জেলায় প্রথম আনা হয়েছে ‘করোনা প্রতিরোধক বুথ’।

পাইলট প্রকল্প হিসেবে প্রাথমিকভাবে ১০টি ‘করোনা প্রতিরোধক বুথ’ বিভিন্ন সরকারি—বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্থাপন করা হবে। পর্যায়ক্রমে বুথের সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে বলে জানান মেয়র।

এসময় কক্সবাজার পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা একেএম তারিকুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আমিন আল পারভেজ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নু এমং মারমা মং, কাউন্সিলর আকতার কামাল, কক্সবাজার পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ নুরুল আলম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার টিটন দাশ, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. খোরশেদ আলম ও জনসংযোগ কর্মকর্তা আহসান সুমনসহ সংশ্লিষ্ট অনেকে উপস্থিত ছিলেন।