নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের টেকনাফর দমদমিয়া এলাকা থেকে ১০ টি অস্ত্রসহ দুই রোহিঙ্গাকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫ সদস্যরা। যারা রোহিঙ্গা ডাকাত জকির গ্রুপের সক্রিয় সদস্য।

সোমবার (১ ফেব্রুয়ারী) সকাল থেকে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের এসব অস্ত্রসহ আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, মুচনী রোহিঙ্গা শিবিরের সৈয়দ হোসেন (৫৫) ও বদি আলম (২০)। তারা দুইজনই জকির গ্রুপের সক্রিয় সদস্য।

র‌্যাবের তথ্যমতে, রোহিঙ্গা দুর্ধর্ষ ডাকাত জাকিরের শালা বদি আলম কে গ্রেফতার করা হয় । পরবর্তীতে তার কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে টেকনাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অপারেশন পরিচালনা করে জকের ডাকাতের অন্যতম সহযোগী সৈয়দ হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। সৈয়দ হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে জকিরের গোপন অস্ত্রের সন্ধান দেয়। প্রথমে ২ টি এবং পরবর্তীতে টেকনাফের গভীর পাহাড়ে মাটির নিচে ড্রামের ভিতর বাকি আটটি অস্ত্র পাওয়া যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-১৫ অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ জানান, ১০ টি অস্ত্র জকির গ্রুপের কাছে ছিল। গ্রেফতারকৃত দুইজনের মধ্যে একজন জকির ডাকাতের শ্যালক বদি আলম। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে এসব অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। টেকনাফের গহীন পাহাড়ে মাটি খুড়ে একটি ড্রামের ভেতর রাখা এসব অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

কক্সবাজার র‌্যাব ১৫ উপ-অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ক্যাম্পে নানা অপরাধ কর্মকান্ড করে আসছিল জকির গ্রুপ। সে গ্রুপের কাছে এসব অস্ত্র মজুদ ছিল। জকির গ্রুপের বিরুদ্ধে র‌্যাব সব সময় অভিযান চালাচ্ছে। এরআগেও বেশ কিছু অস্ত্রসহ তাদের অনেক সদস্য আটক হয়।