টেকনাফের একটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ‘দুই রোহিঙ্গা ডাকাত দলের’ মধ্যে ঘণ্টাব্যাপী গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে একজন নিহত এবং ২৩ জনের বেশি আহত হয়।

অ্যার্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) জানিয়েছে, তোহা বাহিনী ও আরেক ডাকাত দলের দ্বন্দ্বে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

রবিবার ভোরে টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যংয়ে চাকমারকুল ক্যাম্পে এই ঘটনা ঘটে। নিহত নুর হাকিম ওই ক্যাম্পের বাসিন্দা। গোলাগুলির ঘটনায় ক্যাম্প রোহিঙ্গাদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

টেকনাফ হোয়াইক্যংয়ে চাকমারকুল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ইনচার্জ এপিবিএন-এর ইন্সপেক্টর মনির হোসেন জানান, ক্যাম্পে দুই ডাকাত দলের মধ্য গোলাগুলির ঘটনায় একজন মারা গেছে, আরও ২৩ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে বেসরকারি সংস্থা সেভ দ্যা চিলড্রনের অধীনে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার মর্গে পাঠানো হয়েছে। পাহাড়ে অভিযান পরিচালনা করা হবে।