দমদমিয়া এলাকায় র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রুপ হাশেম বাহিনীর প্রধান হাশেমুল্লাহ (৩৩) নামের এক রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দেশে তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

হাশেম বাহিনীর প্রধান হাশেমুল্লাহ উপজেলার হ্নীলা জাদিমুড়া ২৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ‘সি’ ব্লকের বশির আহমদের ছেলে।

১৬ জুলাই,শুক্রবার ভোরে টেকনাফ উপজেলার  হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় র‌্যাবের আরও দুই সদস্য আহত হয়। নিহত শীর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রুপ হাসেম বাহিনীর প্রধান বলে জানায় র‌্যাব। কক্সবাজার ক্যাম্পের র‌্যাব-১৫ এর সহকারি পুলিশ সুপার (এএসপি) বিমান কুমার কর্মকার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, টেকনাফ উপজেলার জাদিমুরা ২৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সংলগ্ন পাহাড়ের পাদদেশে আজ শুক্রবার ভোরে ডাকাত দলের মধ্যে গুলি বিনিময়ের খবর পেয়ে র‌্যাব ঘটনাস্থলে পৌঁছলে ডাকাতদল তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে।

এসময় র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে ডাকাতদল পিছু হটলে পরবর্তীতে ঘটনাস্থল থেকে র‌্যাব-১৫ এর সদস্যরা অস্ত্রসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক রোহিঙ্গা ডাকাতের মৃতদেহ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।