টেকনাফে ২ লাখ ৮০ হাজার ইয়াবাসহ মিয়ানমারের ৭ নাগরিককে আটক করেছে কোস্টগার্ড। এসময় ইয়াবা পাচার কাজে ব্যবহৃত ট্রলারটি জব্দ করা হয়।

বুধবার ভোরে টেকনাফের কাটাবুনিয়া এলাকায় অদূরে বঙ্গোপসাগরে এ ঘটনা ঘটে।

টেকনাফস্থ কোস্টগার্ডের ষ্টেশনের ইনচার্জ লে. কমান্ডার আমিরুল হক বলেন, কোস্টগার্ড নিয়মিত টহলকালে কাটাবুনিয়া এলাকায় নাইট ভিশন যন্ত্রের মাধ্যমে একটি ট্রলার দেখতে পায়। তখন সন্দেহ হলে কোস্টগার্ডের টহল দলটি সামনে এগিয়ে ট্রলারটি থামাতে বলে। কিন্তু ট্রলারটি না থামিয়ে কোস্টগার্ডের টহল দলের উপর গুলতি নিক্ষেপ করতে থাকে।

“পরে কোস্টগার্ড গতিপথ পরিবর্তন করে ট্রলারটি ধরতে সক্ষম হয়। এরপর ট্রলারটি তল্লাশীকালে ২টি জেরিক্যান পায়। জেরিক্যান দুটি কেটে মোট ২৮টি প্যাকেট পাওয়া যায়। যার মধ্যে ২ লাখ ৮০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট লুকায়িত ছিল। এসব ইয়াবা পাচার কাজে জড়িত মিয়ানমারের বাসিন্দা মোহাম্মদ (১৮), বেল্লাল হোছন (১৮), জামাল হোছন (১৯), মঞ্জুর আলম (১৮), আব্দুর রহমান (৫০), মোঃ জাকির হোসেন (২৮) এবং জাকের হোছন (৫৫) কে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায় তারা নিয়মিত এভাবে মিয়ানমার থেকে ইয়াবা এনে বাংলাদেশে পাচার করে।”

লে. কমান্ডার আমিরুল আরও বলেন; ইয়াবা পাচার কাজে ব্যবহৃত ট্রলারটি জব্দ করা হয়েছে। মিয়ানমারের ৭ জন নাগরিককে আরও অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের পর সংশ্লিষ্ট আইনের মামলা দায়ের করে টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হবে।