ক্যাম্পাসকে নান্দনিক ও যুগোপযোগী করতে প্রথমবারের মতো একটি ‘মহাপরিকল্পনা’ প্রণয়ন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় এই মহাপরিকল্পনা অনুমোদন হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর।

এই ‘মাস্টারপ্ল্যান’ শিগগিরই সরকারের কাছে উপস্থাপন করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, “মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়নকারী প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন পর্যায়ের বিশেষজ্ঞসহ সংশ্লিষ্টদের মতামত ও পরামর্শ গ্রহণ করে এই মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়ন করা হয়েছে। এই মাস্টার প্ল্যানে পরিকল্পিত এবং বিজ্ঞানসম্মত আধুনিক ও নান্দনিক ক্যাম্পাস তৈরির সুস্পষ্ট নির্দেশনা ও প্রস্তাবনা রয়েছে। এতে ক্যাম্পাসকে যুগোপযোগী করাসহ ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা রয়েছে।”

শিক্ষার্থীদের একাডেমিক উৎকর্ষ অর্জনে প্রয়োজনীয় প্রযুক্তিগত ও ভৌত অবকাঠামোগত উন্নয়ন, আবাসিক চাহিদা মেটানো, আন্তর্জাতিক মানের লাইব্রেরি সুবিধা, পার্কিং সুবিধাসহ যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ, সবুজায়ন, খেলার মাঠ উন্নয়ন, সোলার এনার্জি স্থাপন, রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিংসহ জলাধার সংরক্ষণ ও সৌন্দর্যবর্ধন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনাসহ পরিবেশ সংরক্ষণ, আধুনিক জিমনেসিয়াম নির্মাণ, মানসম্মত মেডিকেল সেন্টার স্থাপন ইত্যাদি বিবেচনায় নিয়ে ভবিষ্যৎ ক্যাম্পাস বিনির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে এই মহাপরিকল্পনায়।

সরকারের বিশেষ আর্থিক অনুদানে এই মহাপরিকল্পনা প্রণীত হওয়ায় উপাচার্য  মো. আখতারুজ্জামান সরকারকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।