প্রথমবারের মতো সুপ্রিম কোর্টে নারী বিচারক নিয়োগ দিতে যাচ্ছে পাকিস্তান। ৫৫ বছর বয়সী ওই বিচারপতির নাম আয়েশা মালিক। আয়েশাকে সুপ্রিম কোর্টের বিচারক করার পক্ষে বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) বিচারকদের পদোন্নতি বিষয়ক সিদ্ধান্ত গ্রহণ কমিশন ভোট দিয়েছে।  শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) এ খবর জানা গেছে ভয়েস অব আমেরিকার এক প্রতিবেদনে।

তবে আয়েশাকে নিয়োগ দেওয়ায় ফুঁসে উঠেছে দেশটির আইনজীবীদের একাংশ। ভয়েস অব আমেরিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতবছর নয় সদস্য বিশিষ্ট দল শীর্ষ আদালতে তার পদোন্নতি নিয়োগ নিশ্চিতকরণ প্রত্যাখ্যান করেছিল। এবারও তাকে সুপ্রিম কোর্টের বিচারক বানানোর বিরোধিতা করেছেন অনেক আইনজীবী ও বিচারক।

তারা বলছেন, সিনিয়রদের তালিকা লঙ্ঘন করে তাকে এই নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। আয়েশা মালিক নিম্ন আদালতের শীর্ষ তিন প্রবীণ বিচারকের মধ্যে ছিলেন না।

বেশ কয়েকটি আইনজীবী সংস্থার সদস্যরা এই নিয়োগ নিয়ে আদালতের কার্যক্রম বর্জন এবং ধর্মঘট করার হুমকি দিয়েছেন। তারা বলছেন, সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের মনোনয়নের জন্য নির্দিষ্ট যে মানদণ্ড রয়েছে এই ক্ষেত্রে তা উপেক্ষা করা হয়েছে।