কার জন্য বেশ কয়েক সপ্তাহ তারা গ্রামে অবস্থান করেছিলেন। চিত্রশিল্পী পিট জুইয়ার্স খিটহর্নে স্থায়ী হয়েছিলেন। চিত্রশিল্পী হেন্দ্রিক ব্রোয়ার খিটহর্নে জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

আজকাল খিটহর্ন নেদারল্যান্ডসের জনপ্রিয় অবকাশ ও পর্যটন কেন্দ্রের একটি। বিদেশিরা ছাড়াও প্রচুর ডাচবাসী নিরিবিলি ছুটি কাটাতে চলে আসেন এখানে। সেজন্য গড়ে উঠেছে হোটেল, ভ্যাকেশান ভিলা, ক্যাফে অনেক কিছু। পায়ে হেঁটেই শহরটা পুরো দেখা যায়। মনোরোম প্রাকৃতিক দৃশ্যকে আরো মনোরোম করেছে বিভিন্ন আকারের সুদৃশ্য সব উইন্ডমিল আর সেতুর উপস্থিতি।

বিভিন্ন রকমের বোট ট্রিপের ব্যবস্থা আছে যা পর্যটকদের কাছে খুব জনপ্রিয়। আর আছে ভাজা মাছ খাবার জন্য হরেক রকম মাছ ভাজার দোকান। ফিশ অ্যান্ড চিপ্স না খেলে খিটহর্ন ট্রিপটাইতো মিছে। সব যে খিটহর্নের খালেরই মাছ তা নয়, বাইরে থেকেও আসে। এর বাইরে ন্যাশনাল পার্ক, জাদুঘর আরও কত কি আছে এখানে!

শহরের মধ্যে গাড়ি, বাস, ট্রেন কিছুই চলে না। তাই সবাইকে শহরের বাইরে গাড়ি রেখে পায়ে হেঁটে শহরে ঢুকতে হয়। কিছু কিছু জায়গায় সাইকেল চলতে পারে, নইলে সবাই পায়ে হেঁটে কিংবা নৌকায় করে চলাচল করে।

ছবি কৃতজ্ঞতা: লেখক