পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার লড়াইয়ে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) ভাইস চেয়ারম্যান ও সদ্য বিদায়ী পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি ও ইমরানবিরোধী পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) সভাপতি শাহবাজ শরিফ।

পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডনের খবরে বলা হয়েছে রোববার (১০ এপ্রিল) দুপুরে কোরেশি ও শাহবাজ মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের লক্ষ্যে সোমবার (১১ এপ্রিল) পাকিস্তানের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদের অধিবেশন বসার কথা রয়েছে।

সকালে পিটিআইয়ের রাজনীতিক কানওয়াল শাওজাব ও জেরিন কোরেশি পার্লামেন্টে গিয়ে মাহমুদ কোরেশির পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। পরে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

শাওজাব সংবাদমাধ্যমকে বলেন, পিটিআইয়ের কোর কমিটির সঙ্গে পরামর্শ করে প্রধানমন্ত্রী পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শাহ মাহমুদ কোরেশি।

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ সচিবালয় জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছিল, নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে ১১ এপ্রিল স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় জাতীয় পরিষদের অধিবেশন শুরু হবে। পরে এ সময় পরিবর্তন করা হয়। এখন সোমবার বেলা দুইটায় অধিবেশন শুরু হবে।

প্রসঙ্গত, বহু নাটকীয়তার পর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর পদ হারিয়েছেন সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান। শনিবার (৯ এপ্রিল) সারাদিন জাতীয় পরিষদের অধিবেশন তিন চার দফা মুলতুবি হবার পর পাকিস্তানে মধ্যরাতের পর অনাস্থা ভোট অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় পরিষদের ৩৪২জন সদস্যের মধ্যে ১৭৪ জন সদস্য তার প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করে ভোট দেন। পাকিস্তানের ইতিহাসে এই প্রথম একজন প্রধানমন্ত্রীকে অনাস্থা ভোটে পরাজিত হয়ে ক্ষমতা ছাড়তে হল।