কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে রোহিঙ্গা যুবক সাদেক হোসেনকে আটক করা হয়েছে। জেলার করিমগঞ্জের নিয়ামতপুর গ্রামের ঠিকানা ব্যবহার করে পাসপোর্ট তৈরির উদ্দেশ্যে গতকাল বুধবার সকালে এই অফিসে এসেছিলেন তিনি।

তাঁর কাগজপত্রে বাবার নাম মোহাম্মদ হোসাইন ও মায়ের নাম লতিফা উল্লেখ করা হয়েছে। এই বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

কিশোরগঞ্জ সদর থানার ওসি আবুবকর সিদ্দিক জানান, আটক রোহিঙ্গা যুবক পুলিশের হেফাজতে আছেন। তবে তিনি কোন ক্যাম্প থেকে এসেছেন, তা বোঝা যাচ্ছে না। কারণ তিনি কিছু বাংলা শব্দ ছাড়া কিছুই বুঝতে পারেন না, বলতেও পারেন না। তবে তাঁকে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক মো. আনিসুর রহমান জানান, পাসপোর্ট দেওয়ার ক্ষেত্রে সাদেকের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। এই সময় ভাষার সমস্যাসহ তাঁর আচার-আচরণ দেখে সন্দেহ হলে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি যে রোহিঙ্গা তা স্বীকার করেন।