বান্দরবান সদর উপজেলায় পর্যটকবাহী জিপ গাড়ির ওপর সন্ত্রাসীদের গুলি বর্ষণের ঘটনায় ২৩ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বান্দরবান সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন রাঙামাটির রাজস্থলী থানার গাইন্দ্যা ইউনিয়নের বাসিন্দা য়চিং খই (৩৩)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বান্দরবান সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সোহাগ রানা।

তিনি পূর্বকোণকে বলেন, গত ১৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে সদর উপজেলার গলাচিপা এলাকায় পর্যটকবাহী গাড়ি লক্ষ্য করে সন্ত্রাসীদের গুলি বর্ষণের ঘটনায় বান্দরবান সদর থানায় ২৩ জনকে আসামি করে য়চিং খুই নামে এক ব্যক্তি একটি মামলা করেন। মামলার পরপরই আইনানুগ কার্যক্রম শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, মামলায় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য ও জনসংহতি (সমিতি জেএসএস) নেতা বান্দরবান সদরের বাসিন্দা কেএসমং মারমাকে প্রধান আসামি করা হয়। ২ নম্বর আসামি করা হয় রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলার মংনুচিং মারমা। অন্যরা বান্দরবান সদর, রোয়াংছড়ি, রাজবিলা এবং রাঙামাটি জেলার বাসিন্দা।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার বাদি য়চিং খইসহ তাঁদের একটি পর্যটক দল রাজস্থলী থেকে বান্দরবানের রুমা উপজেলা ঘুরতে যায়। পরে গত শনিবার ভ্রমণ শেষে তাঁরা বান্দরবান হয়ে রাজস্থলী যাওয়ার সময় ওই দিন বিকেল বান্দরবান সদরের কুহালং ইউনিয়নের গলাচিপা এলাকায় পৌঁছালে আসামিরা তাদের গাড়ির গতিরোধ করে হত্যার করার জন্য গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি বর্ষণ করে।

মামলায় আরও বলা হয়, গুলির ঘটনায় পর্যটকবাহী জিপ গাড়ির টাকা ফুটে যায় এবং গাড়িতে থাকা ছয়জন পর্যটক গুলিবিদ্ধ হয়। আহতদের রাজস্থলীর বাঙালহালিয়া বাজারে বিভিন্ন ফার্মেসিতে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনায় গাড়ির বিভিন্ন অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।