মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা  দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন ‘উর্দুভাষী যুব-ছাত্র আন্দোলনের’ নেতাকর্মীরা। রবিবার (২১ ফেব্রুয়ারী) সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তারা।

সংগঠনের সভাপতি মো. ইমরান খানের নেতৃত্বে উর্দুভাষী যুব-ছাত্র আন্দোলনের সহ-সভাপতি মো. রাজু ও আসিফ ইকবাল, সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ আলম, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম,সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মুন্না, যুগ্ন-সাংগঠনিক সম্পাদক কামরান হায়দার,দফতর সম্পাদক সাব্বির হোসেন, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো. শান, প্রচার সম্পাদক সাচিন মো. মাসুম প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শ্রদ্ধা নিবেদনের পর উর্দুভাষী যুব-ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি মো. ইমরান খান বলেন, ‘‘১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন হয়েছিল উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা করার বিরুদ্ধে, উর্দু ভাষার বিরুদ্ধে নয়। তাই ৪৮ থেকে ৫২ পর্যন্ত  চার বছরে এই আন্দোলনে বহু সংখ্যক উর্দুভাষী কবি-সাহিত্যিক-সাংবাদিক-ছাত্র-পেশাজীবী ও সচেতন উর্দুভাষী নাগরিকরাও এই অন্দোলনে সমর্থনসহ অংশগ্রহণ করেছিলেন। তাদের মধ্যে সাংবাদিক জয়নুল আবেদীন ও ডক্টর সৈয়দ ইউসুফ হাসান অন্যতম। ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই, নূরুল আমিনের কল্লা চাই’ স্লোগান তুলেছিলেন তারা। পাকিস্তানের সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণের মাতৃভাষার সম্মান রক্ষার এই আন্দোলনের রক্তিম দিনকে ইউনেস্কো আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসেবে ঘোষণা করেছে। আমরা এই দিনে পৃথিবীর সকল মানুষের মাতৃভাষার প্রতি এবং সকল ভাষা সৈনিক ও শহীদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী জ্ঞাপন করছি।’

তিনি বলেন, ‘সরকারের কাছে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় অবস্থিত ১১৭টি ক্যাম্পে বসবাসকারী উর্দুভাষী বাংলাদেশিদের মাতৃভাষায় শিক্ষা গ্রহণের অধিকার,শিক্ষা ও চাকরির ক্ষেত্রে ভাষাগত সংখ্যালঘু হিসেবে কোটা বরাদ্দ এবং সর্বপরি এই জনগোষ্ঠীর মর্যাদাপূর্ণ স্থায়ী পুনর্বাসনের দাবি জানাচ্ছি।’