নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ ভাসানচরে নতুন থানা গঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে এই থানা উদ্বোধন করেন।

নোয়াখালী জেলার পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নোয়াখালী-৬ আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদাউস, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ (আইজিপি), বাংলাদেশ ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার), স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব মো. শহিদুজ্জামান।

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন, নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান, ভাসানচর আশ্রয়ন প্রকল্পের প্রকল্প-৩ এর প্রকল্প পরিচালক কমোডর আবদুল্লাহ আল মামুন চৌধুরী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জেলা পুলিশ এবং পুলিশের অন্যান্য ইউনিটের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ভাসানচর মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় জেগে উঠা ৬৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এক বিচ্ছিন্ন দ্বীপ। মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচর আশ্রয়ন প্রকল্প-৩ এ স্থানান্তরের সরকারের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ভাসানচরে বসবাসরত রোহিঙ্গা ও অন্যান্যদের নিরাপত্তা বিধান ও আইন-শৃঙ্খলা নিশ্চিতকল্পে ভাসানচর থানা স্থাপিত হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে ভাসানচরে তিন হাজার ৭৬২ জন রোহিঙ্গা বসবাস করছেন। এ থানা গঠনের ফলে তাদের নিরাপত্তা বিধানসহ সামগ্রিক আইন-শৃঙ্খলা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব এবং আইজিপি প্রত্যেকে থানা চত্বরে একটি করে গাছের চারা রোপণ করেন।