ভেঙে গেলো ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক দল গণফোরাম। প্রতিষ্ঠার ২৭ বছর পর দলটি দুই ভাগে বিভক্ত হলো। ২৬ সেপ্টেম্বর, শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে দলটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টুর নেতৃত্বে দলের বর্ধিত সভায় নতুন কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা করা হয়।

আগামী ২৬ ডিসেম্বর এই কেন্দ্রীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়। এ সময় মন্টুসহ তিন কেন্দ্রীয় নেতার নেতৃত্বে দলটির বেরিয়ে যাওয়া অংশের সবাই উপস্থিতি ছিলেন।

এ বর্ধিত সভার সিদ্ধান্তের বিষয়ে গণফোরামের সাবেক নির্বাহী সভাপতি আবু সাইয়িদ বলেন, সংগঠনকে শক্তিশালী ও গণমুখী করার লক্ষ্যে আগামী ২৬ ডিসেম্বর জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। কাউন্সিলকে সফল করার লক্ষ্যে সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টুকে আহ্বায়ক করে ২০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

গণফোরাম নামই থাকবে নাকি নতুন দল গঠন করা হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে মন্টু বলেন, ২৬ ডিসেম্বরের কাউন্সিলে উপস্থিত ডেলিগেটদের মতামতে ভিত্তিতে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এছাড়াও ড. কামাল হোসেন তাদের সঙ্গে থাকবেন বলেও বিশ্বাস করেন তারা।

বর্ধিত সভায় তাদেরকে সমর্থন দিয়ে গণফোরামের ৫২ জেলার ২৮৩ জন প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছেন দলটির সাবেক নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী। এছাড়াও গণফোরামের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক, সাংগঠনিক সম্পাদক লতিফুল বারী হামিমসহ আরো অনেকেই সভায় উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ২২ সেপ্টেম্বর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেন গণফোরামের বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সভাপতি ড. কামাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে এই দুই নেতা বলেন, ২৬ সেপ্টেম্বর ডাকা বর্ধিত সভার সঙ্গে গণফোরামের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। সে কারণে আজকের বর্ধিত সভায় তারা কেউই উপস্থিত ছিলেন না।