এবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে হানা দিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস। তার বাড়ির কাজের ছেলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার হাথরসকাণ্ডের প্রতিবাদে পথে নামেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরে গান্ধী মূর্তির পাদদেশ প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে বিজেপিকে তুলোধুনা করেন। এরপর মমতা জানান, তার বাড়িতেও করোনা হানা দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘বাড়িতে আমরা তিনজন থাকি। একটি ছেলে রয়েছে, আমি গেলে ও চা করে দেয়। কাল বাড়ি গিয়ে দেখছি, চা দেয়ার কেউ নেই। শুনলাম, ওরও করোনা হয়েছে।’

মমতা আরও জানা, ‘করোনায় কমিউনিটি স্প্রেড হয়ে গেছে। সেই কারণে যারা সকলের থেকে আলাদা থাকছেন, তাদেরও করোনা হয়ে যাচ্ছে। আমার বাড়ির ছেলেটি তো কোথাও যেত না। ওদের সবসময় আলাদা রাখা হতো। তবুও করোনা হয়ে গেল।’

ভারত করোনাভাইরাস ছড়ানোর জন্য এদিন বিজেপিকে দায়ী করেন তিনি। মমতার অভিযোগ, ‘আমরা সেভাবে মিছিল-মিটিং করছি না। কিন্তু বিজেপি মিছিল-মিটিং করে যাচ্ছে। দাঙ্গা লাগাচ্ছে, করোনা ছড়িয়ে যাচ্ছে। অথচ অনেক রাজ্যে কেউ তো বাইরেই বেরোচ্ছে না। আমরা তো সবসময় রাস্তায় রয়েছি। কাজ করছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপ চলছে। আমার দলের নেতারাও মারা গেছেন। পুলিশ সদস্য, সাংবাদিকও প্রাণ হারিয়েছেন। কত মানুষ মারা যাচ্ছে। এখন করোনার কমিউনিটি স্প্রেড হয়ে গেছে।’