কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার কালারমারছডা ইউনিয়ন এর উত্তর নলবিলায় গত ৬ দিন ধরে নিখোঁজ গৃহবধূ আফরোজা বেগম এর লাশ উদ্ধার করা হলো স্বামীর বাড়ির আঙ্গিনায় মাটির নিচে পুঁতে রাখা অবস্থা হতে। গতকাল ১৭ অক্টোবর রাত ১১টায় মহেশখালী থানা পুলিশ ও কালারমারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির পৃথক দুটি দল লাশটি উদ্ধার করে।

নিহত আফরোজা উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের মো. ইসহাক এর মেয়ে। এক বছর পূর্বে উত্তর নলবিলা গ্রামের হাসান বশিরের পুত্র বদরখালী কলেজের খণ্ডকালীন প্রভাষক রাকিব হাসান বাপ্পির সাথে আফরোজার বিয়ে হয়। এটি উভয়ের যথাক্রমে তৃতীয় ও চতুর্থ বিয়ে। তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহের জের ধরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা পর্যন্ত গড়ায়। অবশেষে কিছুদিন পূর্বে মামলায় আপসের সূত্র ধরে স্বামী বাপ্পি স্ত্রী আফরোজাকে তার বাড়িতে নিয়ে যান।

গত ১২ অক্টোবর স্ত্রী আফরোজা নিখোঁজ হন বলে শাশুড়ি রোকেয়া হাসান আফরোজার বাবার বাড়িতে খবর দেন। সেই থেকে আফরোজা নিখোঁজ ছিলেন। অপরদিকে স্বামী রাকিব হাসান বাপ্পী ও পলাতক হয়ে যান। গতকাল রাত সাড়ে এগারোটায় মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল হাই জানিয়েছেন, স্বামী রাকিব হাসান বাপ্পির বাড়ির আঙ্গিনায় মাটির নিচে পুঁতে রাখা অবস্থা থেকে আফরোজার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।