মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন দেশটির বিরোধীদলীয় নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য দেশটির পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছেন বলে দাবি ‘মালয়েশিয়ার পিপলস জাস্টিস পার্টি’র এই নেতার। খবর রয়টার্সের।

মঙ্গলবার আনোয়ার জানিয়েছেন, রাজার সঙ্গে বৈঠক করে নিজের সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দেবেন তিনি। আর যদি তিনি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিতে সমর্থ হন তাহলে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিনকে হটিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেবেন ঝানু এই রাজনীতিবিদ।

আনোয়ার ইব্রাহিমের দাবি, তার প্রতি সংখ্যাগরিষ্ঠ আইনপ্রণেতার সমর্থন থাকার অর্থ হচ্ছে জনগণ তাকে সরকার গঠনের জন্য সমর্থন দিয়েছে। তবে ঠিক কতজন আইনপ্রণেতার সমর্থন তিনি পেয়েছেন তা সুনির্দিষ্ট করে জানাননি।

গেল ২০১৮ সালের মে মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের পর দুটি সরকার গঠিত হলেও মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান হয়নি। আনোয়ার ইব্রাহিমের সমর্থন নিয়ে ওই নির্বাচনে ক্ষমতায় আসেন পাকাতান হারাপান জোট নেতা ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তবে ২০২০ সালের মার্চে জোটটির বেশ কয়েকজন আইনপ্রণেতা মুহিউদ্দিন ইয়াসিনকে সমর্থন দিলে পতন ঘটে মাহাথির সরকারের। এখন মুহিউদ্দিন ইয়াসিনকে হটাতে সমর্থ হলে আনোয়ার ইব্রাহিম হবেন এক বছরের মধ্যে মালয়েশিয়ার তৃতীয় প্রধানমন্ত্রী।

আনোয়ার ইব্রাহিম ইউনাইটেড মালয় ন্যাশনাল অর্গানাইজেশনের (ইউএমএনও) সদস্য থাকাকালে ১৯৯৩-১৯৯৮ সাল পর্যন্ত মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং ১৯৯১-১৯৯৮ সাল পর্যন্ত অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু পরে তাকে প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বরখাস্ত করেন। দুর্নীতি ও সমকামিতার দায়ে জেলহাজতেও পাঠান।