মিয়ানমারের সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে ‘জনগণের প্রতিরক্ষামূলক যুদ্ধ’ ঘোষণা করেছে দেশটির ছায়া সরকার।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) ন্যাশনাল ইউনিটি গভমেন্টের প্রেসিডেন্ট দুয়া লাসি লা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত এক ভিডিওবার্তায় এ যুদ্ধের ঘোষণা দেন।

ভিডিওতে তিনি বলেন, “জনগণের জীবন ও সম্পদ রক্ষার উদ্দেশ্যে সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলো ন্যাশনাল ইউনিটি গভমেন্ট।”

এ যুদ্ধকে ‘জনগণের বিদ্রোহ’ আখ্যা দিয়ে সব স্তরের মানুষকে মিন অং হলাইংয়ের সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামার আহ্বান জানান তিনি।

এসময় সামরিক সরকারকে উৎখাত করতে ছায়া সরকারের পরিকল্পনার কোথাও জানান দুয়া লাসি লা। স্থানীয় গেরিলা কার্যক্রম ও আমলাদের পদত্যাগের মাধ্যমে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করার আহ্বান জানান তিনি।

মিয়ানমারের সামরিক শাসন বিরোধী বেসামরিক গণতান্ত্রিক ছায়া সরকার মূলত আত্মগোপনে থাকা সদস্যদের নিয়ে গঠিত। এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে দেশটির সামরিক জান্তা ক্ষমতায় বসার পর থেকে তাদের বিরুদ্ধে কার্যক্রম চালিয়ে আসছে ন্যাশনাল ইউনিটি গভমেন্ট।

এ আন্দোলনে দেশটির সামরিক জান্তার হাতে এখন পর্যন্ত এক হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছে রাজনৈতিক বন্দিদের অধিকার বিষয়ক সংস্থা। তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ করেছেন  দুয়া লাসি লা। মিন অং হলাইংকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।