পর পর তিনটি জয়। মিরপুরে রচিত হলো ঐতিহাসিক কাব্য। টাইগারদের হাতে ধরাসায়ি ক্যাঙ্গারু।

শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তৃতীয় টি-টুয়েন্টিতে সিরিজ জয়ের মিশনে নেমে ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৭ রান সংগ্রহ করে শামীম-মাহমুদউল্লাহরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১১৭ রানে গুটিয়ে যায় অজিরা। ফলে ১০ রানে জয় পায় বাংলাদেশ।

১২৮ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৮ রানে ফেরেন ম্যাথু ওয়েড। প্রথম দুই ম্যাচে ১৩ ও ৪ রানে আউট হওয়া ম্যাথু ওয়েড এদিন ১ রানের বেশি করতে দেননি নাসুম।

এরপর তিনে ব্যাটিংয়ে নামা মিচেল মার্রশকে সঙ্গে নিয়ে ৬৩ রানের জুটি গড়ে দলকে খেলায় ফেরান বেন ম্যাকডারমট।

অবশ্য তাদের জুটিটা ৬০ রানে ভেঙে যাওয়ার  কথা ছিল। ১৩তম ওভারে মোস্তাফিজের বলে ম্যাকডারমটের ক্যাচ ফেলে দেনে শরিফুল ইসলাম। ৩২ রানে নতুন লাইফ পান এ ওপেনার।

আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়তে পারেনি বাংলাদেশ দল।

৩ রানে দুই ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম ও সৌম্য সরকারের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়া বাংলাদেশ, অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৭ রান করে।

দলের হয়ে ৫৩ বলে খেলে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন রিয়াদ। এছাড়া ২৬ ও ১৯ রান করে আউট হন সাকিব আল হাসান ও আফিফ হোসেন। ৫ বলে ১১ রান করে রান আউট হন নুরুল হাসান সোহান।

বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ের (বিকাল ৫টা ৩০ মিনিট) দেড় ঘণ্টা পর টস হয়। জিতে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন।

আজকের ম্যাচে বাংলাদেশের একাদশে কোনো পরিবর্তন ছিলোনা। অস্ট্রেলিয়ার একাদশে বদল ছিলো তিনটি। ম্যাচে ছিলেননা মিচেল স্টার্ক, জশ ফিলিপি ও অ্যান্ড্রু টাই। একাদশে ঢোকেন বেন ম্যাকডারমট, ড্যান ক্রিস্টিয়ান ও নাথান এলিস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ১২৭/৯ (নাঈম ১, সৌম্য ২, সাকিব ২৬, মাহমুদউল্লাহ ৫২, আফিফ ১৯, শামীম ৩, সোহান ১১, মেহেদি ৬, মুস্তাফিজ ০, শরিফুল ০*; টার্নার ১-০-২-০, হেইজেলউড ৪-০-১৬-২, জ্যাম্পা ৪-০-২৪-২, অ্যাগার ৪-০-২৩-০, এলিস ৪-০-৩৪-৩, মার্শ ১-০-১৫-০, ক্রিস্টিয়ান ২-০-৯-০)।

অস্ট্রেলিয়া: ২০ ওভারে ১১৭/৪ (ম্যাকডারমট ৩৫, ওয়েড ১, মার্শ ৫১, হেনরিকেস ২, কেয়ারি ২০*, ক্রিস্টিয়ান ৭*; মেহেদি ৩-০-২৯-০, নাসুম ৪-১-১৯-১, সাকিব ৪-০-২২-১, মুস্তাফিজ ৪-০-৯-০, শরিফুল ৪-০-২৯-২, সৌম্য ১-০-৯-০)।

বাংলাদেশ একাদশ ছিলেন: নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, শামীম পাটোয়ারী, শেখ মেহেদী হাসান, নাসুম আহমেদ, শরিফুল ইসলাম,  মোস্তাফিজুর রহমান।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ ছিলেন: আলেক্স ক্যারি, মিচেল মার্শ, মোজেজ হেনরিকস, ম্যাথু ওয়েড, অ্যাস্টন টার্নার, অ্যাস্টন অ্যাগার, অ্যাডাম জাম্পা, জশ হ্যাজেলউড, বেন ম্যাকডারমট, ড্যান ক্রিস্টিয়ান, নাথান এলিস।