কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পুড়ে যাওয়া ৫৩৭টি ঘর পুনর্নির্মাণ করছে কাতার চ্যারিটি। সম্প্রতি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে এসব শেল্টার পুরোপুরি ভষ্মিভূত হয়ে যায়। শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসনে নিযুক্ত কমিশনারের কার্যালয়ের (আরআরআরসি) বিশেষ নকশা অনুযায়ী এবং তাদের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে এসব ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে।

কাতার চ্যারিটির রিলিফ কো-অর্ডিনেটর তানভীর এলাহী জানান, কুতুপালং মেঘা ক্যাম্পে নির্মিত (ক্যাম্প-৯) বাঁশের তৈরি দুই কক্ষবিশিষ্ট এসব ঘর দুর্যোগসহনশীল।

প্রতিটি ঘরে ৬ সদস্যের একটি পরিবার থাকতে পারবে। ইতোমধ্যে অনেকগুলো ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

কাতার চ্যারিটি তৈরি ঘর ইতোমধ্যে পেয়েছেন রোহিঙ্গা শরণার্থী নূর হাসিনা। তিনি বলেন, কিছুদিন আগে ভয়াবহ আগুনে আমাদের ঘর পুড়ে যায়।

এরপর থেকে আমরা ৩ সদস্যের পরিবার ঘরহীন অবস্থায় দিন-রাত পার করেছি। পুনরায় এই নতুন ঘর পেয়ে আমরা খুবই খুশি।