লাখো মুসল্লি ও ভক্তদের উপস্থিতিতে মুফতি আজম হাটহাজারী মাদ্রাসার সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত মহাপরিচালক মাওলানা আব্দুস সালাম চাটগাঁমীর জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাত ১১টা ৬মিনিটে হাটহাজারী জেলা পরিষদ ডাক বাংলোতে অনুষ্ঠিত নামাজে জানাজার ইমামতি করেন হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের আমীর মাওলানা মহিবুল্লাহ বাবুনগরী।

জানাজা শেষে হাটহাজারী মাদ্রাসার উত্তর মসজিদের বায়তুল আতিক জামে মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে চির নিদ্রায় শায়িত হলেন আব্দুস সালাম চাটগাঁমী। যেখানে আগে থেকেই হাটহাজারী মাদ্রাসার সাবেক মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী ও হেফাজতের সাবেক আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীসহ হাটহাজারী মাদ্রাসার শীর্ষ আলেমগণকে দাফন করা হয়।

এদিকে মাওলানা আব্দুস সালাম চাটগাঁমীর মারা যাওয়ার খবর শুনে দেশের বিভিন্ন বিভাগ, জেলা-উপজেলা থেকে আসা ধর্মপ্রাণ প্রায় লাখো ভক্ত, মুসল্লী এ জানাজায় অংশ নিয়েছেন।

জানা যায়, গতকাল বুধবার বেলা ১২টার দিকে আব্দুস সালাম চাটগাঁমীর মরদেহ বহনকারী এ্যাম্বুলেন্সটি হুজুরের দীর্ঘদিনের কর্মস্থল হাটহাজারী মাদ্রাসায় পৌঁছে।

এর আগে লাখো লাখো জনতার উপস্থিতিতে পুরো হাটহাজারী সদর মুখর হয়ে উঠে। তাছাড়া রাত ১০টা থেকে হাটহাজারী-নাজিরহাট-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে দুইপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। হাটহাজারী প্রবেশ মুখের রাঙামাটি সড়কসহ বিভিন্ন উপ সড়কেও যান চলাচল দীর্ঘসময় বন্ধ ছিল। অনেকে পায়ে হেঁটে জানাজায় অংশ নেন। লাখো জনতার উপস্থিতিতে রাত সাড়ে ১০টায় হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে মরহুমের লাশ বহনকারী এ্যাম্বুলেন্সটি মাদ্রাসার সামনে জেলা পরিষদের ডাক বাংলোর সামনে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ সময় হুজুরের লাখো ভক্তকে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায়। হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে রাত ১১টা ৬ মিনিটে নামাজ জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

নামাজে জানাজার আগে বক্তব্য রাখেন হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের আমীর মাওলানা মহিবুল্লাহ বাবুনগরী, হেফাজত মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম জিহাদী, মাওলানা ইয়াহইয়া, মাওলানা আহমদিয়া, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা আমিনুল শাহ, মাওলানা সালাউদ্দিন নানুপুরী, আব্দুস সালাম চাটগাঁমীর ছেলে মাওলানা ইসহাক।
উল্লেখ্য মুফতি আব্দুস সালাম চাটগাঁমী হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন। আল্লামা শাহ আহমদ শফীর ইন্তেকালের পর তিনি মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির প্যানেল মুহতামিম হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। গতকাল সাড়ে ১০টায় মাদ্রাসার মহাপরিচালক, মুহতামিম নির্ধারণ নিয়ে শূরা সদস্যদের বৈঠক শুরু হয়। ওই বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন তিনি। এসময় মহাপরিচালক হিসেবে আব্দুস ছালাম চাটগাঁমির নাম ঘোষণার পরপরই তিনি হুইল চেয়ারে বসা অবস্থায় ইন্তেকাল করেন।

আল্লামা মুফতি আব্দুস সালাম চাটগাঁমীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন, হাটহাজারীর সাংসদ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালাম, উত্তর জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম রাশেদুল আলম, বাংলাদেশ কল্যাণ পাটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ইবরাহিম বীর প্রতীক, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের নেতা জাফর আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মোহাম্মদ আলী ও সোহরাব হোসেন চৌধুরী নোমান নেতৃবৃন্দ শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন পূর্বক মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আল্লামা মুফতি আব্দুস সালাম চাটগাঁমীর ইন্তেকালে দেশ একজন অভিজ্ঞ আলেমকে হারিয়েছে। এই আলেমের মৃত্যুতে দেশের যে ক্ষতি সাধিত হয়েছে তা পুরণ হওয়ার নয়।