পাঁচ দিনের মাথায় ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্মাণাধীন তৃতীয় টার্মিনালের মাটি খুঁড়ে আবারও বিশাল আকৃতির বোমা উদ্ধার হয়েছে। যার ওজন প্রায় আড়াইশ কেজি।

সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বোমাটি উদ্ধার হয়। খবরে পেয়ে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করে। এর আগে গত বুধবার বিমানবন্দরের একই জায়গায় ২৫০ কেজির আরেকটি বোমা উদ্ধার হয়েছিল।

বোমা বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন, বোমাটি ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় নিক্ষেপ করা হয়েছিল।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর জানায়, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের কনস্ট্রাকশন সাইটে পাইলিংয়ের কাজ করার সময় সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটের দিকে ১০ ফুট মাটির নিচ থেকে ২৫০ কেজি ওজনের বোমা সদৃশ বস্তু পাওয়া যায়। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বিষয়টি বিমানবাহিনীকে জানায়। পরে গিয়ে সেটি নিস্ক্রিয় করা হয়।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ এইচ এম তৌহিদ উল আহসান জানান, বিমান বাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুর প্রশিক্ষিত বোম্ব ডিসপোজাল দল আধুনিক যন্ত্রপাতি সহকারে দ্রুত ঘটনাস্থলে যায়। এরপর বোমাটি নিষ্ক্রিয় করা হয়। পরবর্তীতে বোমাটি ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে প্রয়োজনীয় সর্তকতার সঙ্গে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্মাণাধীন তৃতীয় টার্মিনাল থেকে ৯ ডিসেম্বর ২৫০ কেজি ওজনের সিলিন্ডারসদৃশ একটি বোমা উদ্ধার করে বিমানবাহিনীর বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট। পরে ১০ ডিসেম্বর দুপুরে টাঙ্গাইলের রসুলপুরে বিমানবাহিনীর ফায়ারিং রেঞ্জে এ বোমাটি ধ্বংস করা হয়। এ সময় বিকট শব্দে বোমাটি বিস্ফোরিত হয় বলে বিমানবাহিনীর সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করে।