কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ৮ জানুয়ারি (শুক্রবার) ২৬ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব (কেআইএফএফ)-এর উদ্বোধন হল। এদিন বিকালে রাজ্য সরকারের সচিবালয় নবান্ন’এর সভাঘর থেকে প্রদীপ জ্বালিয়ে ভার্চুয়াল মাধ্যমে উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

এসময় সেখানে ছিলেন মুম্বাই থেকে আগত পরিচালক অনুভব সিনহা, পরিচালক গৌতম ঘোষ, রাজ চক্রবর্তী, অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিক, দীপক অধিকারী (দেব), ইন্দ্রানী হালদার, কৌশিক সেন, অরিন্দম গাঙ্গুলী, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, শতাদ্বী রায় প্রমুখ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের যুব ও কল্যাণ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন, পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, মুখ্যসচিব আলাপন ব্যনার্জি সহ রাজ্যের একাধিক সরকারি কর্মকর্তারাও।

উদ্বোধনী ভাষণে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মমতা ব্যনার্জি জানান ‘ বাংলা হল সংস্কৃতির রাজধানী। তাই কোভিড অতিমারির মধ্যে ছোট করে হলেও আমরা উৎসব করেছি, কিন্তু অনেকেই আছে যারা এই জিনিস করতে সাহস-ই পায়নি। বিশ্ব মানচিত্রে বাংলা আবার প্রথম জায়গা নেবে বলেও আশা ব্যক্ত করে তিনি বলেন ‘টলিউডে যে প্রতিভা আছে-তা দিয়েই একদিন বাংলা হলিউড ও বলিউডকে টক্কর দিয়ে প্রথম স্থান অধিকার করবে। ’
উল্লেখ্য, প্রতি বছরের নভেম্বর মাসের শুরুর দিকে শুরু হয় এই উৎসব।

কিন্তু করোনার জেরে এবার তা প্রায় দুই মাস পিছিয়ে যায় এই উৎসব। উৎসব চলবে আগামী ১৫ জানুয়ারী পর্যন্ত।
ভার্চুয়াল মাধ্যমে মুম্বাই থেকে এদিনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শাহরুখ খান। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি বলেন ‘আমার খুব খারাপ লাগছে যে আমি এবার সশরীরে উপস্থিত নেই।

তার অভিমত ‘কলকাতা আমার পরিবার, বাংলা আমার পরিবার, গোটা দেশ আমার পরিবার। ’ এই উৎসবের সাফল্য কামনা করেন এসআরকে।
ভার্চুয়াল মাধ্যমে উপস্থিত থাকা শাহরুখকে রাখি বন্ধনে বাংলায় আসার আমন্ত্রণ জানান মমতা। শাহরুখের তরফে মুখ্যমন্ত্রীকে আস্বস্ত করে বলা হয় তিনি কেবল আসবেনই না, সাথে উপহারও নিয়ে আসবেন।
কেআইএফএফ’এর চেয়ারম্যান রাজ চক্রবর্তী জানান ‘কোভিড পরিস্থিতির মধ্যেও এই চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করার কৃতিত্ব মমতা ব্যনার্জির।

তার অভিমত আয়তনে ছোট হলেও গুণগত মান একই আছে। ’
এবারের চলচ্চিত্র উৎসবে ফিচার ফিল্ম, শর্ট ফিল্ম এবং ডকুমেন্টারি মিলিয়ে ৪৫ দেশের মোট ১৩১ টি সিনেমা দেখানো হবে। ছবি প্রদর্শনের জন্য মোট ৮ টি সরকারি ভেন্যু বাছাই করা হয়েছে। উদ্বোধনী ছবি হিসাবে দেখানো হবে বিশ্ববরেণ্য চিত্র পরিচালক সত্যজিত রায়ের ‘অপুর সংসার’ সিনেমাটি। প্রয়াত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে স্মরণ জানাতেই এই ছবিটি দিয়েই এবারের চলচ্চিত্র উৎসবের সূচনা হবে।