একেই বলে ভাগ্য! সকালে ছিলেন প্রায় ফকির বিকেলে বনে গেলেন কোটিপতি। লটারির জেরে কোটিপতি হলেন এক রংমিস্ত্রি। এই ঘটনা ভারতের। 

ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে জানা যায়, ৫০০ টাকার নোট নিয়ে বাজার করতে বেরিয়েছিলেন কেরালার কোট্টয়মের বাসিন্দা সদানন্দন ওলিপারাম্বিল। কিন্তু দোকানি খুচরা না দেওয়ায় মহা বিড়ম্বনায় পড়েন। বাজারের কাছেই ছিল লটারির একটি দোকান। খুচরা করার জন্য কিছু টাকা দিয়ে লটারি কিনেন। এর পর বাকি টাকা নিয়ে ফের বাজার করতে চলে যান।

দেশটির সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, বিকেল হতেই এলাকায় হইহই পড়ে যায়। কেননা, ওই এলাকা থেকেই লটারির প্রথম পুরস্কার জিতেছেন এক জন। কিন্তু বিজয়ী কে সেটা তখনও কেউ জানতে পারেননি। সদানন্দনের কানে যখন খবর পৌঁছায় যে এলাকার এক জনের ভাগ্যে প্রথম পুরস্কার জুটেছে, তিনি আর স্থির থাকতে পারেননি। জামার পকেটে রাখা টিকিট বের করে সোজা লটারির দোকানের দিকে যান।

এর পর লটারির দোকানে টিকিটের নম্বর মেলাতেই আঁতকে ওঠেন সদানন্দন। আরও ভাল করে কয়েক বার টিকিটের নম্বর মেলান। দেখেন তার কেনা টিকিটেই প্রথম পুরস্কার হয়েছে। যার মূল্য ১২ কোটি টাকা!

তবে ১২ কোটি টাকা জিতলেও পুরো টাকাটা হাতে পাবেন না সদানন্দন। আয়কর কেটে প্রায় সাড়ে সাত কোটি টাকা হাতে পাবেন তিনি।