আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, অনেকে লুটপাঠ করে পিঠ বাঁচাতে লুণ্ঠিত সম্পদ রক্ষা করতে নৌকায় উঠতে চায়। কাউকে সেই সুযোগ দেওয়া হবে না।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেলে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখতে গিয়ে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সামনে পৌর সহ নানা নির্বাচন শুরু হয়েছে। এসব নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে যারা অংশগ্রহণ করবে তাদের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ সহ গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশে দেড় কোটি মানুষ নানাভাবে ভাতা পাচ্ছে। যা ইউরোপের দেশগুলোতেও চালু নেই। সুতরাং, ১২ বছর আগে এ দেশের কি অবস্থা ছিল, আজ কি অবস্থা, সে বিষয়গুলো সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছানোর জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন।

কক্সবাজারে সরকারের উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ নিয়ে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার কক্সবাজার কে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। কেউ স্বপ্নেও ভাবেনি কক্সবাজার পর্যন্ত রেললাইন আসবে। কিন্তু তা আজ বাস্তবে রূপ নিয়েছে। আগামী বছর ঢাকা থেকে কক্সবাজার রেল পৌঁছাবে। কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করা হয়েছে। এসব উন্নয়নের কথা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে দলের নেতাকর্মীদের প্রতি নির্দেশ দেন তিনি।

এর আগে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ দলীয় কার্যালয়ে আসলে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এছাড়াও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান কক্সবাজার প্রেস ক্লাবের নব-নির্বাচিত সভাপতি আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মুজিবুল ইসলাম।

শহরের লালদীঘির পূর্বপাড়স্থ জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, মহিলা সংসদ সদস্য কানিজ ফাতেমা মোস্তাক, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব) ফোরকান আহমদ, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম প্রমুখ।