করোনার কারণে দীর্ঘদিন ধরে দেখা মেলেনি আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনার।

বুধবার হঠাৎই মাঠে দেখা গেছে তাকে।

সাত বছরের ছেলে দিয়েগো ফার্নান্দোকে সঙ্গে নিয়ে এদিন স্যান লরেঞ্জোর বিপক্ষে জিমনাসিয়ার ম্যাচে মাঠে আসেন ম্যারাডোনা।

আর ম্যাচের পরই সাংবাদিকদের ওপর রেগে আগুন হয়ে যান ম্যারাডোনা।

সেই আগুন নেভাতে নিজের ইনস্টাগ্রামে সাংবাদিকদের ধুয়ে দেন তিনি।

মূলত করোনাঝুঁকি এড়াতে মাঠে যে ফেস শিল্ডটি পরে এসেছিলেন ম্যারাডোনা তা নিয়েই এ রাগের সূত্রপাত।

মাস্ক না পরে এমন ফেস শিল্ড পরায় শিশু থেকে শুরু করে প্রাপ্তবয়স্কদের হাস্যরসের বিষয়ে পরিণত হন ম্যারাডোনা।

ফেস শিল্ডটি টয় স্টোরি কার্টুন মুভির চরিত্র বাজ লাইটইয়ারের সঙ্গে মিলে যাওয়ায় এ নিয়ে মিম বানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়েন অনেকে। ট্রলড হন তিনি।

আর এসব বিষয়কে প্রচার করেন স্থানীয় সাংবাদিকরা।

সাংবাদিকদের এমন কাণ্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করে আর্জেন্টিনার এই বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি ইনস্টাগ্রামে লেখেন– ‘আমার চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনেই আমি বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় এমন মাস্ক পরেই বের হয়েছি। ঠিক একই মাস্ক চিকিৎসকরাও ব্যবহার করে থাকেন। যারা করোনায় দায়িত্বপালনের সময় প্রাণ হারিয়েছেন আমি তাদের প্রতি সম্মান জানাতে এটা পরেছি। অথচ কিছু প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ ও সাংবাদিক আমাকে নিয়ে উপহাস করেছে।’

এর পর ম্যারাডোনা লেখেন, ‘এসব সাংবাদিকের জন্য আসলে কী করা উচিত জানি না। আপনি স্বাস্থ্যবিধি না মানলেও এরা সমালোচনা করবে, আবার এখন মানছি বলেও নানান কথা বলছে, আমাকে নিয়ে হাসাহাসি করছে।’

তথ্যসূত্র: টিএমজে, ইএসপিএন