আগামী নির্বাচনে কোন বিদ্রোহী প্রার্থীকে আওয়ামী লীগে মনোনয়ন না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় স্থানীয় সরকার নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ড।

যার ফলশ্রুতিতে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার গেল উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হওয়া ১ উপজেলা চেয়ারম্যান ও ৩ ইউপি চেয়ারম্যান দলের মনোনয়ন পাওয়া ক্ষীণ হয়ে এসেছে।

আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকারের নির্বাচনী দলীয় মনোনয়ন বোর্ডের ঘোষণা অনুযায়ী টেকনাফ উপজেলার উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৬টি ইউনিয়নের ৪টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী বিদ্রোহী প্রার্থীরা আবারো দলের মনোনয়ন বঞ্চিত হচ্ছেন। এমনকি দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচন করে যারা পরাজিত হয়েছেন তাঁরাও দলের মনোনয়ন পাচ্ছেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে নির্বাচনী বোর্ড।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে যারা নির্বাচন করে জয়ী হয়েছেন কিংবা পরাজিত হয়েছেন এমন কাউকে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দেবেনা। দলের মনোনয়ন বোর্ডে যাদের নাম প্রস্তাব করা হবে তাঁরা অতীতে দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনে করেছে কিনা যাচাই-বাচাই করা হবে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউপি চেয়ারম্যান নুর হোসেন, টেকনাফ সদর ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান মিয়া ও সেন্টমার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ ও উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলম দলের হাইকমান্ডের এ নির্দেশনার আওতায় থাকবেন।

জানতে চাইলে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান মেয়র বলেন, বিষয়টি কানে এসেছে। এখনও পর্যন্ত কেন্দ্র থেকে কোনকিছু লিখিতভাবে আসেনি।