দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী মোহাম্মদ সেলিম প্রকাশ ডাকাত সেলিম কর্তৃক উনচিপ্রাং স্টেশনের কুলিং কর্ণার ব্যবসায়ী সাইফুলকে গুলি করার প্রতিবাদে স্থানীয় বাজার পরিচালনা কমিটি ও সকল ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন সম্পন্ন হয়েছে । কাদের কুলিং কর্ণার এর মালিকের পুত্র, উনচিপ্রাং বাজার পরিচালনা কমিটির সদস্য সাইফুল ইসলামের উপর এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী মোহাম্মদ সেলিম, ওরফে ডাকাত সেলিম কর্তৃক দোকানে গুলি করার প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে এলাকার সকল দোকান মালিক ,স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন অংশগ্রহণ করেন।

জুমাবার, টেকনাফ-কক্সবাজার মহাসড়কের উনচিপ্রাং স্টেশনে আয়োজিত এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ব্যবসায়ীদের পক্ষে বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ তাহের নঈম, সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল জাহেদ লিটন, উনচিপ্রাং সমাজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হোছন আহমদ , সহ-সভাপতি মাওলানা ফরিদুল আলম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা নিরীহ ব্যবসায়ী সাইফুল এর ওপর গুলিবর্ষণ এর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে বলেন, সন্ত্রাসী অস্ত্রধারী সমাজের শত্রু, দেশের শত্রু। একজন নিরীহ ব্যবসায়ীর উপর গুলি বর্ষণের ঘটনায় সকল ব্যবসায়ী ব্যতিত ও মর্মাহত। আমরা এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই । ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ অনতিবিলম্বে ডাকাত সেলিম কে গ্রেপ্তার করে তার অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানান।

আহত সাইফুলের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদানে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন। সভাপতির বক্তব্যে সাংবাদিক তাহের নঈম বলেন ,অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী যদি আমার ভাই আমার পুত্র ও হয়, তাকে আমি আইনের হাতে তুলে দেব। এই মন মানসিকতা সকলের দরকার।

মানববন্ধন চলাকালে স্থানীয় জনতা ব্যবসায়ী ছাড়াও হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ কর্মকর্তারা ও উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য , সেলিম ডাকাত আগ্নেয়াস্ত্র গুলিসহ একাধিকবার আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক হয়।

এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল আধিপত্য বিস্তার করতে তাকে জেল থেকে টাকার বিনিময়ে ছাড়িয়ে আনে ।এখন প্রশ্ন হচ্ছে তাকে আশ্রয়দাতা কারা ? জেল থেকে বার বার বের করে নিয়ে আসে কারা? এসব বিষয় তদন্তের দাবি রাখে।

এদিকে উনচিপ্রাং বাজারে নিরীহ ব্যবসায়ী সাইফুল এর ওপর গুলি বর্ষণের ঘটনায় অবশেষে টেকনাফ মডেল থানায় অস্ত্র আইনে মামলা রুজু হয়েছে।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাফিজুর রহমান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মাহমুদুল হাসানকে অস্ত্রধারী ডাকাত মোহাম্মদ সেলিম কে যেকোন মূল্যেই গ্রেফতার করার নির্দেশ প্রদান করেছেন।

হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির আইসি ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মাহমুদুল হাসান ডাকাত সেলিমকে আটক করতে অভিযান অব্যাহত রেখেছেন বলে জানান।