টেকনাফের হ্নীলার রঙ্গীখালীতে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তান্ডব চালিয়েছে বসতবাড়িতে। এসময় এসব বসতঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর, নগদ অর্থ ও স্বর্ণ অলংকার লুট করে নিয়ে যায় তারা।

বৃহস্পতিবার রাতে পশ্চিম রঙ্গীখালীতে এঘটনা ঘটে। গিয়াস উদ্দিন, মিজানুর রহমান, আবচার উদ্দিন ও জসিম উদ্দিনের বাড়িতে আব্দুল মজিদ প্রকাশ ভোলাইয়া বৈদ্যের পুত্র শাহ আলম (৩৬), সাবের আহমদের পুত্র নুরুল হুদা ওরফে ওদুইল্যা (৪০), নুরুল আবছার (২৫), নুর আহমদের পুত্র আব্দুল হাকিম (৩৮), নাজির হোছনের পুত্র মোঃ হোছন ওরফে কালাইয়া (৩৪), গাজী পাড়ার মৃত গুরা মিয়ার পুত্র শুক্কুর প্রকাশ শিয়াইল্যা (৩২), কবির আহমদের পুত্র নুরুল আমিন (৪০) এবং পূর্ব রঙ্গিখালীর মীর কাশেমের পুত্র আক্তার হোছন কালু (৩৫) সহ ২০/২৫ জনের স্বশস্ত্র একটি গ্রুপ এ হামলা চালায়। চারটি বসতবাড়ির আসবাবপত্র ভাংচুর, নগদ অর্থ ও স্বর্ণ অলংকার লুট করে নেয়ার পাশাপাশি গবাদি পশু নিয়ে যায়।

এঘটনায় টেকনাফ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পক্ষে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এলাকাবাসী বলছে, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার হ্নীলা রঙ্গিখালী এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জেরধরে সৃষ্ট শফিক মেম্বার ও আবুল আলম গংয়ের গ্রুপিংয়ের কারণে হত্যা, খুন, জবরদখল,ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় উত্তপ্ত রয়েছে। এসব সন্ত্রাসীদের ভয়ে সাধারন মানুষ কথা বলতে চাচ্ছে না।

এ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে হত্যা,অস্ত্র,ডাকাতি, মাদক ও রাহাজানিসহ অনেক মামলা রয়েছে। তাই উক্ত এলাকায় সাধারণ মানুষের অবাধে চলাচল এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত করতে দ্রুত অভিযান পরিচালনার দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী।