টেকনাফের লেদায় অভিযান চালিয়ে দূর্ধর্ষ ডাকাত পুতিয়া গ্রুপের অন্যতম দু’ সদস্যকে অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‍্যাব-১৫৷

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, উপজেলার হ্নীলা পূর্ব সিকদার পাড়ার মৃত ইদ্রিসের ছেলে মো.রমিজ (২৭) ও নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ই-ব্লকের মৃত জহিরের ছেলে মো. শফিক(৩০)।

বুধবার(২ মার্চ) সকালে র‍্যাব-১৫ সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন অধিনায়ক লে. কর্ণেল খায়রুল ইসলাম সরকার।

জানা যায়, বুধবার(২ মার্চ) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-১৫ জানতে পারে যে, টেকনাফের লেদা বাজারের নিকটবর্তী সোলার প্যানেল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিপরীত পাশে কিছু লোকের সন্দেহজনক গতিবিধি লক্ষ করা যাচ্ছে। সংবাদটি পাওয়ার পর র‍্যাব-১৫ রাত্রিকালীন পেট্রোল এবং আভিযানিক দল উক্ত এলাকা ঘেরাও করার চেষ্টা করে। ঐ সময় র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কতিপয় ব্যক্তিগণ বস্তাসহ পালানোর চেষ্টা করে।

একপর্যায়ে রাত ২টার পর উল্লেখিত স্থান থেকে র‍্যাবের আভিযানিক দল দুজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতার রমিজ ও শফির দেহ ও বস্তা তল্লাশি করে ৬টি একনলা বন্দুক, ১টি থ্রি কোয়ার্টারগান, ১টি ওয়ানশুটারগান, ১৮রাউন্ড তাজা গুলি/কার্তুজ, ১টি ছোরা,

১টি লোহার শিকল, ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একই রংয়ের ৫টি-শার্ট ও ২টি নেমপ্লেট উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতার কৃতদের বিরুদ্ধে খুন, গুম, অপহরণ, চাঁদাবাজি, ডাকাতির অভিযোগ রয়েছে ৷