টেকনাফের হ্নীলায় ঔষধ প্রশাষন ও র্যাবের যৌথ অভিযানে ৩টি ফার্মেসী ও ২টি প্যাথলজি সেন্টারকে আট লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এসময় ২টি ফার্মেসী থেকে বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ, বিক্রয় নিষিদ্ধ ও ফিজিশিয়ান স্যাম্পলের ঔষধ জব্দ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ২টা হতে কক্সবাজার ঔষধ প্রশাসনে ঔষধ পরিদর্শক মোহাম্মদ আবুল হাসান ও র্যাব-৪ মিরপুর হেডকোয়ার্টারের এক্সিকিউটিভ মেজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আনিসুর রহমানের নেতৃত্বে যৌথ টিম হ্নীলা চৌমুহনীর পানখালী রোডে অবস্থিত তোফায়েল ফার্মেসীকে লাইসেন্সের মূল কপি না থাকায় এক লক্ষ টাকা, পুরতন বাজার রোডের ফয়সাল মেডিকোকে মেয়াদোত্তীর্ণ, যৌন উত্তেজক, বিক্রয় নিষিদ্ধ ও ফিজিশিয়ান স্যাম্পল রাখার দায়ে ৪ লক্ষ টাকা, আল্লামা ইসহাক মেডিকোকে মেয়াদোত্তীর্ণ ও বিক্রয় নিষিদ্ধ ঔষধ রাখার দায়ে ৩০ হাজার টাকা এবং চেয়ারম্যান মার্কেটস্থ হ্নীলা ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে মেয়াদোত্তীর্ণ টিকা ফ্রিজে সংরক্ষণের দায়ে ১ লক্ষ টাকা ও ভাই ভাই সুপার মার্কেটস্থ হ্নীলা ল্যাব এইড এন্ড প্যাথলজি সেন্টারকে সার্টিফকেট বিহীন টেকনেশিয়ান দিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করার অপরাধে ২ লক্ষ টাকাসহ সর্বমোট ৮ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় ফয়সাল মেডিকো ও আল্লামা ইসহাক মেডিকো থেকে বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ ও বিক্রয় নিষিদ্ধ ঔষধ জব্দ করা হয়।

র্যাব হেডকোয়ার্টার ও কক্সবাজার ঔষধ প্রশাসনের যৌথ টিমের এ ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে সার্বিক সহযোগিতা করেন কক্সবাজার সিভিল সার্জন অফিসের ডাঃ সৌমন বড়ুয়া ও র্যাব-১৫ সিপিসি-১ টেকনাফ স্টেশনের কমান্ডার বিমান চন্দ্রের নেতৃত্বে র্যাবের একটি টিম।