ব্যাপক উৎসব আনন্দের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হল কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় প্রথম প্রতিষ্ঠিত কেজি স্কুল ঐতিহ্যবাহী হ্নীলা আলফালাহ একাডেমির প্রাক্তন ছাত্রদের সাধারণ নির্বাচন ও ইফতার মাহফিল ২০২২ উপলক্ষে মিলনমেলা ৷

শনিবার ৩০ এপ্রিল একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভা একাডেমির প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের সভাপতি মাস্টার আমিনুল্লাহ সাইফ’র সভাপতিত্ব ও মাস্টার সায়েম সিকদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয় ৷

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী৷

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হোয়াইক্যং ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারী, আলফালাহ একাডেমি পরিচালনা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক জহির আহমদ ৷ প্রধান আলোচক ছিলেন একাডেমির অধ্যক্ষ নুরুল হোছাইন ছিদ্দিকী৷

অন্যন্যদের মধ্য কমিটির সদস্য ছালেহ আহমদ, মোক্তার আহমদ দল্লা, মমতাজুল ইসলাম মনু, মাওলানা ইব্রাহিম খলিল, বাহাদুর শাহ তপু, মাওলানা মুছা কলিমুল্লাহ, একাডেমির উপাধ্যক্ষ মাস্টার মুহাম্মদ রফিক, প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষকবৃন্দ, অভিভাবক ও আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন ৷

এর আগে বেলা ১১টায় একাডেমি মিলনায়তনে উপস্থিত প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের প্রত্যক্ষ ভোট অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৩ টা পর্যন্ত চলা এ নির্বাচনে সাধারণ ভোটারদের প্রত্যক্ষ ভোটে নুরুল ইসলাম, অধ্যপক ওমর ফারুক, ডাঃ আবু বকর আল মামুন, হারুনুর রশিদ, আলমগীর সালাম পুলক, সায়েম সিকদার, এডভোকেট আনিসুর রহমান, সাইফুল্লাহ মানসুর, মোহাম্মদ আজম পিংকেল, সেলিনা আকতার ও দিলরুবা খানম রুবা কার্যকরী পর্ষদ সদস্য নির্বাচিত হন৷

নির্বাচিত কার্যকরী পর্ষদ সদস্যগণ নিজেদের মধ্যে প্রত্যক্ষ ভোটাভুটিতে সভাপতি পদে ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক পদে ডাঃ আবু বকর আল মামুন, কোষাধ্যক্ষ পদে এডভোকেট আনিসুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে সাইফুল্লাহ মানসুর এবং দপ্তর সম্পাদক পদে সায়েম সিকদারকে নির্বাচিত করে।

ছায়া সুনিবিড় শান্তিময় সবুজ পরিবেশে ঐতিহ্যবাহী হ্নীলা আলফালাহ একাডেমির ক্যাম্পাসে ছাত্রদের মিলন মেলার ভিতর দিয়ে কাটলো ৩০ এপ্রিল।

সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আয়োজিত বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালার মধ্যে কেউ ব্যস্ত ছিল তাদের নিজেদের ব্যাচের বৈচিত্র্য অন্য ব্যাচের শিক্ষার্থী ও অতিথিদের কাছে তুলে ধরতে, কাউকে দেখা যায়
পুরো দিন রঙ্গীন করে স্মৃতির পাতায় আটকে রাখতে৷

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্কুল প্রাঙ্গনে বন্ধু-বান্ধব ও অগ্রজ-অনুজদের এক মহামিলন ঘটে। প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা ফিরে যাওয়ার প্রয়াস পায় স্কুল বেলার স্মৃতিমাখা দিনগুলোতে, মুহুর্মুহু ক্যামেরার ফ্ল্যাশ আর সেলফিতে মেতে তারা নতুন স্মৃতি সম্ভার গড়ার চেষ্টা করে।

প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহন এক বর্ণাঢ্য মিলন মেলায় রূপ নেয়। অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সকাল থেকেই ক্যাম্পাসে একে একে জড়ো হতে থাকে পুরো আলফালাহ একাডেমি পরিবার।

.

.