১৮ বছরের উপরে প্রত্যেককেই টিকার আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও জানান, আগামী মাসে ফাইজারের ৬০ লক্ষ ডোজ টিকা এবং এ্যস্ট্রাজেনেকার ২৯ লাখ ডোজ আসবে। আজ (১৫ জুলাই) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কোভিড আইসিইউ সম্প্রসারণ ও ওপিডি শেড উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী জানান, দেশে এখন ৩ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন রাখার সক্ষমতা রয়েছে। আরও টিকা সংরক্ষণ করার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি কেনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গ্রাম-পর্যায়ে সাধারণ মানুষের নিবন্ধন জনিত জটিলতার কথা মাথায় রেখে জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে টিকা দেবার পরিকল্পনা করছে সরকার।

করোনা পরিস্থিতিতে হাসপাতালগুলোর পরিস্থিতি সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, সারা দেশে ১৫ হাজার বেডের মধ্যে ৭৫ শতাংশে রোগী আছে। আইসিইউ এর ক্ষেত্রেও একই অবস্থা।

সংক্রমণ না কমলে স্বাস্থ্য সেবা বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে বলে আশংকা করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানান, জেলা উপজেলায় নতুন ৫ হাজার আইস্যুলেশন বেড করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়েড় স্বাস্থ্যকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেবা নিশ্চিত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

কিছুদিনের মধ্যেই ৪ হাজার নার্স ও ২ হাজার ডাক্তার এবং ব্যাপক সংখ্যক টেকনিশিয়ান নিয়োগ দেয়া হবে বলে উল্লেখ করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।