আগামী ২ এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত টেকনাফ-সেন্টমার্টিন দ্বীপ নৌরুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ হচ্ছে। টানা সাত মাস এ দ্বীপে পর্যটকের যাতায়াত বন্ধ থাকবে।

সোমবার (২৮ মার্চ) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. পারভেজ চৌধুরী।

তিনি বলেন, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সাগর উত্তাল থাকে বলে সাধারণত মার্চের ৩০ তারিখের মধ্যে সেন্টমার্টিন রুটে যাত্রীবাহী জাহাজ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।

কেয়ারী সিন্দবাদ ও কেয়ারী ক্রজ এন্ড ডাইন জাহাজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহ আলম বলেন, টেকনাফ-সেন্টমার্টিন দ্বীপ নৌরুটে জাহাজ চলাচলের অনুমতি আছে ৩০ মার্চ পর্যন্ত। কিন্তু ২ এপ্রিল পর্যন্ত কিছু পর্যটক সেন্টমার্টিনে রাত্রিযাপন করবেন বলে তাদের আনার জন্য ওই দিন পর্যন্ত জাহাজ চলাচলের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ছাড়া ২ এপ্রিল সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে ফেরার সময় প্রতিটি জাহাজে দ্বীপের আবর্জনা বোঝাই করে টেকনাফে আনা হবে।

সেন্টমার্টিনের ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান বলেন, আগে সেন্টমার্টিন দ্বীপের ৯০ শতাংশ মানুষ সাগরে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করলেও এখন অধিকাংশ মানুষ পর্যটনের ওপর নির্ভরশীল। পর্যটন ব্যবসায় তাদের জীবন-জীবিকা চলে। কিন্তু আগামী ২ এপ্রিল থেকে দ্বীপে পর্যটকের আগমন বন্ধ হয়ে যাবে জেনে এরই মধ্যে ৩০টির বেশি হোটেল-রেস্তোরাঁ ও শতাধিক দোকানপাট বন্ধ হয়ে গেছে।