কক্সবাজার শহরের এন্ডারসন রোডস্থ জলিল টাওয়ারের মালিকের অন্যায় আচরণের প্রতিবাদে আগামী ৪ এপ্রিল থেকে লাগাতার অবস্থান ধর্মঘট পালন করবে ব্যবসায়ীরা। এই সময়ের মধ্যে পুরনো দোকানদারদের চুক্তি মতে দোকান বুঝিয়ে না দিলে আরো কঠোর আন্দোলনে যাবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) দুপুরে অবস্থান ধর্মঘট থেকে এমন ঘোষণা দিয়েছেন কক্সবাজার দোকান মালিক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি ও পৌর প্যানের মেয়র মাহবুবুর রহমান চৌধুরী।

তিনি বলেন, জলিল টাওয়ারের দুর্দিনে প্রায় ৩৫ বছর ধরে লাভ-লোকসানে দোকান করেছে অনেকে। নতুন মার্কেট করার আগে পুরাতন ৭ জন দোকানির সঙ্গে চুক্তি করেছেন, কিন্তু দোকান বরাদ্দ দেননি মার্কেট মালিক কলিম উল্লাহ। অধিক লোভে নতুন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তিনি। যে কারণে পুরাতন ব্যবসায়ীরা পথেপথে।

মাবু বলেন, সমাধানের জন্য তাকে অনেকবার বলেছি। অনুরোধ করেছি। এখন আর কারো কাছে যাব না। এমনকি প্রশাসনের কাছেও না। কলিম উল্লাহকে নাকে খত দিয়ে আমাদের নিকট আসতে হবে।

তিনি বলেন, আগামী ৪ এপ্রিল থেকে জলিল মার্কেটের সামনে ২টি মাইক টাঙানো হবে। সেখানে অবস্থান ধর্মঘট চলবে। কিভাবে মার্কেট খোলে দেখে নেব।

কাউন্সিলর মাহবুব দুঃখের সঙ্গে বলেন, কলিম উল্লাহর সাথে আমার সুসম্পর্ক ছিল। শুধু ব্যবসায়ীদের স্বার্থে সেই সম্পর্ক নষ্ট করেছি। আমরা বার্মা থেকে ভেসে আসিনি। ব্যবসায়ীরা ভাই ভাই, ঐক্যবদ্ধ। আমাদের ‘একদফা এক দাবি, দোকান দিবি দোকান দিবি।’ এর বাইরে আর কোন কথা নাই। দাবি আদায় করেই ঘরে ফিরব।

কক্সবাজার দোকান মালিক সমিতি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেমের সঞ্চালনায় সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এড.রনজিত দাশ, পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ শাহেনা আক্তার পাখি, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবু উজ্জল কর, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বেন্টু দাশ।

বক্তব্য দেন- ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি মোস্তাক আহমদ সওদাগর, উপদেষ্টা জসিম উদ্দীন চৌধুরী, সহসভাপতি আমিনুল ইসলাম হাসান, নুরুল কবির চৌধুরী, ফেডারেশনের যুগ্ম সাধারণ খালেদ ওমর রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আহম্মদ, কক্সবাজার দোকান কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি এডভোকেট মামুনুর রশীদ মামুন, সাধারণ সম্পাদক সাহাব উদ্দিন, ফেডারেশনের অর্থ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক কামাল উদ্দিন মিন্টু, সদস্য আজিব চৌধুরী, মো. নাসির উদ্দিন, বৃহত্তর বার্মিজ মার্কেট দোকান মালিক সমিতির কার্যকরি সভাপতি মুসা কলিম উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক বাবুল, কক্সবাজার বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির সহসভাপতি মো. লোকমান, বৃহত্তর বড়বাজার তরকারি ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার কবির, ডিম ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবু তাহের, ব্যবসায়ী নেতা সৈয়দ আকবর।

সমাবেশে ফেডারেশনের প্রচার সম্পাদক মো. শফিউল আলম, ক্রিড়া সম্পাদক আনোয়ারুল ইমরান রায়হান, সদস্য শাহ খোরশেদ, আলাউদ্দিন সওদাগর, দোকান কর্মচারী ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দিন, বিলকিস মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শাহীনুল ইসলাম শাহীন, পৌর হকার্স মার্কেট সাব কমিটির সভাপতি সাহেদুল ইসলাম শাওন, সহসভাপতি মহিউদ্দিন, মাছ বাজার রোড় সাব কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ সুলতান, সংগঠনিক সম্পাদক ফোরকান, পান বাজার রোড় সাব কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ ফারুক ক্রোকারিজ মার্কেট সাব কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আজিজ, কাঁচা বাজার মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম, কলাতলি ড্রাগন মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আজিজুল হক, কৃষি অফিস রোড দোকান মালিক সমিতির সভাপতি সোহেল, এন্ডারসন রোডের বাসিন্দা কাজল, ব্যবসায়ী নেতা সাইফুল ইসলাম মামুন, শ্রমিক নেতা বাহার উদ্দিন, মোঃ হাশেমসহ বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীবৃন্দ বক্তৃতা করেন।